বৃহস্পতিবার ০৪ জুন, ২০২০

নারায়ণগঞ্জ করোনার ক্লাস্টার: আইইডিসিআর

সোমবার, ৬ এপ্রিল ২০২০, ১৮:০৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: মরণঘাতী ভয়াবহ করোনা ভাইরাসে ঢাকার পরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দারা। ঢাকায় মোট ৬৪ জন করোনা রোগী রয়েছেন। ঢাকার পরই রয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা। এজন্য নারায়ণগঞ্জকে করোনার ক্লাস্টার বলছে আইইডিসিআর।

সোমবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে এক অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

আইইডিসিআর পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা সোমবার ব্রিফিংয়ে বলেন, “গত ২৪ ঘণ্টায় যাদের সংক্রমণ আমরা নিশ্চিৎ করতে পেরেছি তাদের ১২ জন নারায়ণগঞ্জের। নারায়ণগঞ্জে ক্লাস্টার হিসেবে চিহ্নিত করেছি, সেখানে বেশ কিছু কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে, যাতে ওখান থেকে সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে।”

ক্লাস্টার এলাকার বিষয়ে ফ্লোরা বলেন, “যদি কোথাও একই জায়গায় কম দূরত্বের মধ্যে একাধিক রোগী থাকে তখনই আমরা সেটাকে ক্লাস্টার হিসেবে আইডেন্টিফাই করে ইনভেস্টিগেশন করে থাকি।”

নারায়ণগঞ্জের দুই রোগীই হাসপাতালে আসার কিছুক্ষণ পর মারা যান বলে জানান ফ্লোরা।

তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জের যে দুজন মারা গিয়েছেন, সাথে সাথেই তাদের কন্টাক্ট ট্রেসিং শুরু করেছে আইইডিসিআর। এ পর্যন্ত তাদের কন্টাক্টে যতজন পাওয়া গিয়েছে তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, “পুরো নারায়ণগঞ্জকে হটস্পট হিসেবে আইডেন্টিফাই করে সেখানে কোয়ারেন্টিন কার্যক্রমকে আরও বেশি শক্তিশালী করার জন্য আমরা বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছি। ওখানে প্রশাসন আমাদের কার্যক্রমের সাথে যুক্ত রয়েছেন। রোগী যখন চিহ্নিত হয় তখন থেকেই আমরা কোয়ারেন্টিন কার্যক্রম শুরু করি। রোগী জীবিত না মৃত সেটা কিন্তু বিবেচনার বিষয় নয়। কারণ কোয়ারেন্টিন করা হয় যাতে সংক্রমণ ছড়িয়ে না পড়ে।”

গত ২৪ ঘণ্টায় নারায়ণগঞ্জে আরও ২ জনসহ মোট মারা গেছেন ৪ জন এবং নতুন শনাক্ত ১২ জনসহ মোট শনাক্ত হয়েছে ২৩ জন।

করোনায় নতুন করে মারা গেলেন- দেওভোগ আখড়া মোড়ের বাসিন্দা চিত্তরঞ্জন ঘোষ (৫৮) এবং জামতলা হাজী ব্রাদার্স রোডের বাসিন্দা গিয়াসউদ্দিন (৬০) তারা দুজনই রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এর আগে মারা গেছেন বন্দর উপজেলার রসুলবাগের পুতুল (৫০) ও নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সুচিন্তানগর এলাকার বাসিন্দা আবু সাইদ মাতবর (৫৫)।

এমন পরিস্থিতিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি এলাকায় লকডাউন কিংবা কারফিউ জারির জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এক ভিডিও বার্তায় লকডাউনের দাবি জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমানও।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ