শুক্রবার ২৩ এপ্রিল, ২০২১

নাগরিক কমিটির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৪১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ‘আমাদের নারায়ণগঞ্জকে কেমন দেখতে চাই?’ প্রশ্ন সামনে রেখে মতবিনিময় সভা করেছে নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটি। শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেল চারটায় নগরীর শায়েস্তা খাঁ সড়কে সরকারি গণগ্রন্থাগার মিলনায়তনে আয়োজিত এ সভায় জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নাগরিক অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নাগরিক কমিটির সভাপতি অ্যাড. এবি সিদ্দিক, সিনিয়র সহসভাপতি রফিউর রাব্বি, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি অ্যাড. মাহবুবুর রহমান মাসুম, সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজ, নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল হক দিপু, বাসদের জেলা সমন্বয়কারী নিখিল দাস, সিপিবির জেলা সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি লক্ষ্মী চক্রবর্তী, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ভবানী শংকর রায়, আমরা নারায়ণগঞ্জবাসীর সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন মন্টু, গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়কারী তরিকুল সুজন, রোকেয়া পদকপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরিদা আক্তার প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণকারীরা বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ আসলেই প্রথমে শীতলক্ষ্যার কথা উঠে আসে। এই শীতলক্ষ্যার পানি অস্বচ্ছ আবার এখানে তৈরি হয়েছে লাশের ভাগাড়। শহরের যানজট নিরসনে বাস স্ট্যান্ড না থাকাকে দায়ী করেন তিনি। একজন বাসের মালিক বাসগুলো পরিচালনা করবে আর বাস রাখার জন্য জায়গা থাকবে না তা তো হতে পারে না। ফলে তারা বাসগুলো রাস্তায় রেখে দেয়। যার কারণে আমরা প্রায়ই দেখি বাসের আড়ালে ছিনতাইকারীদের উপদ্রব। ফুটপাতে নির্বিঘেœ চলাচল করার জন্য ফুটপাতে বসা হকারদের ব্যবস্থা করতে হবে। নির্দিষ্ট স্থানে হকারদের একটি বাজার গড়ে উঠার দাবি রাখেন তারা।’ চাষাঢ়া চত্ত্বর, ডায়মন্ড হল চত্ত্বরে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের জন্য দাবি তোলেন হাসমত উল্লাহ।

শিক্ষা মানবিক বিষয় উল্লেখ করে তারা বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ শহরকে চেনা হয় বাণিজ্য দিয়ে কিন্তু এখানে যে শিক্ষা ও সংস্কৃতির শহর ছিল তা বর্তমানে নেই। শুধু টাকা কামাই করলে চলবে না পাশাপাশি আমাদের শিক্ষা, দীক্ষা ও সংস্কৃতির দিক দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় নারায়ণগঞ্জের মেয়েরা উদ্যোক্তা হিসেবে সেভাবে এগিয়ে যায়নি। নারায়ণগঞ্জে মেয়েরা যেন অবাধে চলাফেরা করতে পারে এবং ব্যবসা পরিচালনার জন্য উপযুক্ত পরিবশে নির্মাণ করতে হবে। আমাদের নারায়ণগঞ্জে কোন বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারী মেডিকেল কলেজ নেই। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে অনেকে বলছে উদ্যোগ নেওয়া হবে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে জাতীয় সংসদে এ বিষয়ে আদৌ কি কোন দাবি উত্থাপন করা হয়েছে। আমরা নারায়ণগঞ্জ জেলা ধনী জেলা হিসেবে পরিচিত। কিন্তু আমাদের যারা ধনী হয়েছেন বা আছেন তারা তাদের দায়িত্ব ভুলে গেছে। আমাদের নারায়ণগঞ্জকে মাদকমুক্ত করতে হবে। এখানে মাদক দ্রব্য কিভাবে আসে তা খতিয়ে দেখতে হবে। তাহলে মাদকমুক্ত নারায়ণগঞ্জ নির্মাণ করা সম্ভব।’

বক্তারা আরও বলেন, ‘মশার যন্ত্রণা থেকে আমাদের বাঁচার কোন উপাই নেই। আমাদের মেয়র এ বিষয়ে যথেষ্ট পরিমাণ চেষ্টা করেছেন সেজন্য তাকে সাধুবাদ জানাই। তাপরপেও মশার যন্ত্রণা থেকে রক্ষা পেতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে এ বিষয়টি তুলে ধরা হোক। আমাদের নারায়ণগঞ্জে কোন পার্কিংয়ের ব্যবস্থা নেই। ফণে রাস্তার উপরে পার্কিং করতে বাধ্য হতে হয়। সিটি করপোরেশনের কাছে আবেদন বাণিজ্যিকভাবে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। নারায়ণগঞ্জ শহরে কোন গণ শৌচাগার নেই। আমরা ঠিকই দালানের পর দালান করেই যাচ্ছি, রাস্তাঘাট করছি কিন্তু কোন গণ শৌচাগার করা হয়নি। আমাদেরকে মানবিক ভাবে ভাবতে হবে ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে গণশৌচাগার তৈরি করার আহ্বান রইলো। এক নম্বর গেইটে অবস্থিত বাসস্ট্যান্ড কোনভাবেই সরানো সম্ভব নয়। তাই সেখানে বহুতল বাসস্ট্যান্ড নির্মাণের দাবি জানাই এবং সেই সাথে চাষাঢ়ায় রেল স্টেশন হওয়ার বিরোধীতা জানাই। গরীব ও অকার্যকর শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চাই এবং কম ভাড়ায় অডিটোরিয়াম চাই।’

আলোচনায় অংশগ্রহণকারীদের মতামত প্রদানের পর নাগরিক কমিটির সভাপতি এবি সিদ্দিক বলেন, ‘আমরা নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির পক্ষ থেকে বক্তাদের কাছ থেকে দাবিগুলো নির্দিষ্ট আকারে পাওয়ার জন্য এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছিলাম। প্রথমে আমরা বক্তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন দাবিগুলো গুরুত্ব সহকারে সংক্ষিপ্ত করবো। তারপরে সেই দাবিগুলো বিভিন্ন কর্তৃপক্ষের কাছে উপস্থাপন করবো। আমরা জানি এটি আন্দোলন ছাড়া সফল হবে না। সুতরাং আমরা তাদের কাছে দাবিগুলো লিখিত আকারে দিবো এবং সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য আন্দোলন করে যাবো।’

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ