রবিবার ২৯ মার্চ, ২০২০

না.গঞ্জ রাজনীতির দুই দিকপাল ‘শামসুজ্জোহা-জালাল হাজী’

বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২১:২৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ২০ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে এক শোকাবহ দিন। ১৯৮৭ সালের এই দিনে পরলোক গমন করেন নারায়ণগঞ্জের রাজনীতির দুই দিকপাল একেএম শামসুজ্জোহা এবং হাজী জালাল উদ্দিন আহমেদ। একেএম শামসুজ্জোহা ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অন্যদিকে হাজী জালালউদ্দিন নারায়ণগঞ্জ শহর বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা।

নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে আলোচিত এই দুই নেতা তাদের উত্তরসূরিকেও রাজনীতিতে হাতেখড়ি দিয়ে গেছেন। পিতার আশীর্বাদে তারাও রাজনীতিতে নিজের অবস্থান মজবুত করেছেন। প্রয়াত দুই রাজনীতিবিদের সন্তানরা জাতীয় সংসদে প্রতিনিধিত্ব করেছেন এবং করছেন। একেএম শামসুজ্জোহার দুই ছেলে একেএম শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৪ ও একেএম সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের বর্তমান এমপি। এবং আরেক ছেলে প্রয়াত একেএম নাসিম ওসমান ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের একাধিকবার এমপি। এদিকে শামীম ওসমানের ছেলে অয়ন ওসমান সরাসরি রাজনীতিতে না থাকলেও নারায়ণগঞ্জ ছাত্রলীগে বেশ প্রভাব রয়েছে তার।

অন্যদিকে হাজী জালাল উদ্দিনের ছেলে অ্যাডভোকেট আবুল কালাম নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাবেক এমপি ছিলেন। বর্তমানে তিনি বাবার গড়া মহানগর বিএনপির সভাপতি। এদিকে আবুল কালামের ছেলে আবুল কাউসার আশাও বিএনপির রাজনীতিতে সক্রি। সে মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি।

মোটকথা এই দুই রাজনীতিবিদ একদিকে নিজ জীবনে যেমন ছিলেন সফল রাজনীতিবিদ অন্যদিকে পরবর্তী প্রজন্মকেও দিয়ে গিয়েছিলেন রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার শিক্ষা। তাই আজও নারায়ণগঞ্জের সকল রাজনীতির সংগ্রামের ইতিহাসে তাদেরকে নারায়ণগঞ্জবাসী স্মরণ করে গভীর শোক ও শ্রদ্ধায়।

একেএম শামসুজ্জোহা

একেএম শামসুজ্জোহা ছিলেন একাধারে ভাষা সৈনিক, স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর ও সাবেক গণপরিষদ সদস্য। ২০১১ সালে তিনি মরণোত্তর স্বাধীনতা পদক পান। তাঁর পিতা খান সাহেব ওসমান আলী ছিলেন গণপরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য।

একেএম শামসুজ্জোহার বড় ছেলে নাসিম ওসমান ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনের এমপি ও জাতীয় পার্টির সভাপতি মন্ডলীর সদস্য। তিনি ২০১৪ সালে মৃত্যুবরণ করেন। বড় ভাইয়ের প্রয়ানের পর একে এম সামসুজ্জোহার মেজ ছেলে সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি নির্বাচিত হন। তিনি গার্মেন্ট মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফেকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ) এর সভাপতি। ছোট ছেলে শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ ৪ আসনের ৩ বারের সাংসদ।

হাজী জালালউদ্দিন আহম্মেদ

হাজী জালালউদ্দিন আহমেদ বিএনপির নারায়ণগঞ্জ শহর কমিটির প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক ছিলেন এবং বিএনপির প্রার্থী হিসেবে জাতীয় সংসদের নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন থেকে ১৯৭৯ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি দীর্ঘ দিন ঐতিহ্যবাহী নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার কমিশনার ও ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি নারায়ণগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, শহরের গণবিদ্যানিকেতন উচ্চবিদ্যালয়, কদমরসুলের হাজী সিরাজউদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন

হাজী জালালউদ্দিন আহমেদ এর ছেলে আবুল কালাম ৩ বার বিএনপি থেকে এমপি নির্বাচিত হন। বর্তমানে মহানগর বিএনপির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে দিনব্যাপী কোরআন খানি, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, মরহুমদের কবর জিয়ারতের কর্মসূচী রয়েছে।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ