বুধবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৮

না.গঞ্জ-ঢাকা রুটে বাস চালু হলেও সংখ্যা কম, দুর্ভোগ

সোমবার, ৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৩৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে তিন দিন পর নগরের সকল সড়কে বাসের চলাচল শুরু হয়েছে। তবে গাড়ির কাগজপত্র ও চালকের লাইসেন্স ঠিক না থাকায় অনেক মালিক বাস রাস্তায় নামান নি। ফলে যানবাহনের সংখ্যা কম থাকায় যাত্রীদের দুর্ভোগ ছিল।

সোমবার (৬ আগষ্ট) ভোর সকাল সাড়ে ৫টা থেকে নারায়ণগঞ্জ থেকে ঢাকা রুটের সকল বাস চলাচল শুরু করে।

নারায়ণগঞ্জ বাস টার্মিনালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সারিবদ্ধ ভাবে অনেক বাস দাঁড়িয়ে আছে। তবে বাস কাউন্টার থেকে জানা যায় বন্ধু পরিবহনের ৩৪টি বাসের মধ্যে ২০ টি বাস সড়কে চলছে। উৎসব ৫০ টির মধ্যে ২৫ টি, বন্ধন ৪৯টির মধ্যে ৪৪ টি ও আনন্দ বাস মাত্র ৭টি চলছে।

বন্ধন বাসের ব্যবস্থাপক হাজী আইয়ুব আলী বলেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণে বাস বন্ধ ছিল। রোববার দেশের কেন্দ্রীয় বাস মালিক সমিতি থেকে ঘোষনা করার পরেই আজকে বাস চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তবে বেশিরভাগ ড্রাইভাররা ছুটিতে আছে এই কারণে বাসের সংখ্যা আজকে কম। আর আমাদের সব ড্রাইভারদের লাইসেন্স আছে। ড্রাইভাররা আসলেই আমাদের বাস চালু হবে।

বন্ধু বাসের সুপারভাইজার বলেন, ড্রাইভার আজকে কম এজন্য আমাদের বাস কম। আর যেই গাড়ি আর ড্রাইভারের কাগজপত্র ঠিক আছে ওই গাড়ি রাস্তায় চলবে।

উৎসব বাসের সুপারভাইজার রিয়াদ বলেন, আমাদের যে গাড়ির কাগজপত্রের সমস্যা আছে, ঐগুলো ছাড়ি নাই। ২৫ টি গাড়ির কাগজ পত্রের ব্যাপার আছে ঐগুলো ঠিক কইরা তারপর ছাড়মু।

এদিকে বাসের সংখ্যা কম হওয়ায় যাত্রীদের বিপাকে পড়তে হয়েছে। বাস কম থাকার কারণে প্রখর রৌদের মধ্যে তাদের বাসের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপেক্ষারত একজন শিক্ষক বলেন, বর্তমান অবস্থার কারণে বাসের সংখ্যা কম। টিকেট কিনে দাঁড়িয়ে আছি প্রায় ২০ মিনিট হবে, এখনো বাস আসে নাই।

আন্দোলনের পরিস্থিতির কথা ভেবে এখনো অনেক যাত্রী ট্রেনে যাতায়াত করাই নিরাপদ মনে করছেন। নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে প্লাটফ্রমে ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছেন ললিতা রানী। তিনি বলেন, ঢাকায় যাবো, একটা ট্রেন মিস করছি। আরেকটা আসবো বইসা আছি। বাসে গিয়ে যদি অবরোধের কারণে কোথাও আটকে পড়ি তাই ট্রেনেই যাচ্ছি। কিন্তু তারপরেও ছাত্র-ছাত্রীর আন্দোলনকে সমর্থন জানাই।

অন্যদিকে, শহরের বাহিরে শিবু মার্কেট, খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম ও জালকুড়ি এলাকায় যানবাহন সংকটের কারণে অতিরিক্ত ভাড়া দাবি করে বাসের কর্মচারীরা টিকেট বিহীন যাত্রী উঠাচ্ছে। যাত্রীরাও বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়েই চলাচল করছে।

সব খবর
জনদুর্ভোগ বিভাগের সর্বশেষ