শনিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮

ধনীদের শহরে মাছের বাজারে ধ্বস

শুক্রবার, ২৭ জুলাই ২০১৮, ১৭:৫৯

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ দেশের দ্বিতীয় ক্ষুদ্রতম জেলা হলেও দারিদ্রতার হার সবচেয়ে কম। শিল্প-বানিজ্যের এই শহর সাম্প্রতিক সময়ে এক জরিপে ধনী জেলার শীর্ষে অবস্থান করছে। শহর জুড়ে জলাবদ্ধতা আর ডিএনডির ভোগান্তি ভর করেছে নারায়ণগঞ্জে অন্যতম বাজার দিগুবাবুর বাজারেও। টানা ৩ দিনের বৃষ্টিতে মাছের বাজারে নেমেছে ধ্বস। ২৭ জুলাই(শুক্রবার) বৃষ্টি না থাকলেও সরেজমিনে দেখা গেছে ছুটির দিনেও মাছের বাজার ছিল পুরো ফাকা। ক্রেতা সমাগম ছিল কম। টানা বর্ষণের ফলে নেই মাছের আমদানি। বেড়েছে মাছের দাম। বিক্রেতারা বলছেন, বৃষ্টির কারণে ক্রেতা কম। হাতে গুণা কয়েকজন মাছ বিক্রেতা তাদের পসরা সাজিয়ে বসেছেন।

মাছের বাজারের সর্বশেষ তথ্যমতে, ৮০০ গ্রামের একজোড়া ইলিশ ২৫০০ টাকা ও ৭০০ গ্রামের একজোড়া ১৮০০ টাকা কেজি। ইলিশ বিক্রেতা মঙ্গল বর্ণম প্রেস নারায়ণগঞ্জকে বলেন, টানা বর্ষণে নদীতে পানি বাড়ায় ইলিশ ধরা পরছে না। সরবরাহ নেই। এছাড়া বৃষ্টির কারণে বিক্রিও নেই।

এছাড়া চষের শিং মাছ ৬০০ টাকা কেজি, রুই মাছ ৪৫০ টাকা কেজি, পাবদা ৪৫০ টাকা থেকে বেড়ে ৮০০ টাকায় বিক্রে হচ্ছে, কাতল ৪০০ টাকা কেজি, মলায়া ২৫০ টাকা কেজি, পাঙ্গাস মাছ ১৩০ টাকা কোিজ, বাইল্লা মাছ ৮০০ টাকা কেজি, খৈলসা মাছ ৪০০ টাকা কেজি, বাইম মাছ ৬০০ টাকা কেজি, তেলাপিয়া মাছ ১৮০ টাকা কেজি।

সব খবর
অর্থনীতি বিভাগের সর্বশেষ