শুক্রবার ০৫ মার্চ, ২০২১

দেবোত্তর সম্পত্তি আইভী নয় তার আত্মীয়দের দখলে

বুধবার, ৬ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৩৬

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে সম্প্রতি সাইবার ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এই মামলার বিষয়ে মুখ খুলেছেন প্রধান আসামি প্রদীপ দাস। সর্বশেষ নিজের চ্যানেলে একটি ভিডিওতে প্রদীপ দাস দাবি করেছেন, মেয়র আইভী দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করেছেন এটা তারা বলেননি। এছাড়া মেয়র আইভী বিভিন্ন সময় নারায়ণগঞ্জের মন্দিরগুলোর দখলকৃত জমি উদ্ধার করে দিয়েছেন বলেও নতুন ভিডিওতে উল্লেখ করেন তিনি।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) রাতে নিজের ইউটিউব চ্যানেলের লাইভে মামলা প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এ কথা বলেন প্রদীপ দাস। এর আগে গত ৪ জানুয়ারি ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। মামলার অপর আসামি হলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খোকন সাহা।

মামলার প্রধান আসামি প্রদীপ দাস কানাডা প্রবাসী। তার বাড়ি বাংলাদেশের হবিগঞ্জ জেলায়। মামলার প্রতিক্রিয়ায় প্রদীপ দাস বলেন, ‘আমরা বলেছিলাম সেই দেবোত্তর সম্পত্তি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর আত্মীয়দের দখলে। তাদের অপরাধ উনার গায়ে আসবে কেন। আমরা কখনোই বলি নাই মেয়র আইভী দখল করেছেন। দেবোত্তর সম্পত্তি ক্রয় বা বিক্রয় করার নিয়ম আছে কিনা সেটা উনি ভালো করেই জানেন। এই জমি ফেরত দেওয়ার বিষয়ে উনার কোনো বক্তব্য নাই। এই বিষয়ে কথা বলার কারণে আমার এবং অ্যাড. খোকন সাহার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।’

উল্লেখ্য, তিনি আরও বলেন, ‘আমাকে প্রিয়া সাহা বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রিয়া সাহা বলেছিলেন, ৩৭ মিলিয়ন সংখ্যালঘু বাংলাদেশ থেকে উধাও হয়ে গেছে। আমি বলছি ৪০ মিলিয়ন। আমি বলেছি, গত ৫০ বছরে ৪ কোটি হিন্দু বাংলাদেশ থেকে উধাও হয়ে গেছে। উনারা এই উধাও শব্দটিকে লিখেছেন, হত্যা করা হয়েছে। আমি আশ্চর্য হই, একজন মেয়রের আইনজীবীরা ভ্যানিশ (উধাও) এবং কিলিং (হত্যা) শব্দের পার্থক্য তারা জানে না।’

নিজেকে মানবাধিকার কর্মী দাবি করে তিনি বলেন, ‘একজন মানবাধিকার কর্মীর বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের অভিযোগ আনা হয়েছে। যেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘন হবে আমি তার প্রতিবাদ করবো। দখলে থাকা দেবোত্তর সম্পত্তি ফেরত চাইলে সেটা সাম্প্রদায়িক উস্কানি হয় কিনা সেটা জানতে চাইবো।’

তিনি বলেন, ‘আমরা দেখেছি, মেয়র আইভী বিভিন্ন সময় নারায়ণগঞ্জের মন্দিরগুলোর দখলকৃত জমি উদ্ধার করে দিয়েছেন। সেই দৃষ্টান্ত এখানেও স্থাপন করুক। তার আত্মীয়দের যখন কথা আসলো তখন তার কোনো ভূমিকা নেই কেন?’

উল্লেখ, ২০১৮ সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫, ২৭, ২৮, ২৯, ৩১ ও ৩৫ ধারায় করা মামলায় সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী অভিযোগ করেন, সম্প্রতি একটি ইউটিউব চ্যানেলে দেওয়া বক্তব্যে তাকে জড়িয়ে হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি দখলের মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন খোকন সাহা। এ সংক্রান্ত দু’টি ভিডিও ওই ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হওয়ার কথা মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। ভিডিও দু’টির দৈর্ঘ্য যথাক্রমে ১৪ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড এবং ১২ মিনিট ৪২ সেকেন্ড। ওই ভিডিওগুলোতে পরিকল্পিতভাবে তাকে জড়িয়ে আক্রমনাত্মক বক্তব্য দিয়ে হেয় প্রতিপন্ন, অপমান অপদস্ত করা এবং রাজনৈতিকভাবে ফায়দা হাসিল করারও অভিযোগ করেছেন সিটি মেয়র আইভী।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ