সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯

‘সন্ত্রাসী-খুনিদের এক চোখে দেখুন’ প্রধানমন্ত্রীকে রফিউর রাব্বি

রবিবার, ৬ অক্টোবর ২০১৯, ২১:১৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক ও ত্বকীর পিতা রফিউর রাব্বি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘যারা খুন-খারাবির সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। ওসমান পরিবারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। এই ওসমান পরিবার শুধু ত্বকীকে নয় বহুহত্যা করেছে। এই হত্যার মধ্য দিয়ে তারা নারায়ণগঞ্জে ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছে। এই পরিবারের সঙ্গে যারা জড়িত আছে তারাও খুনের, ত্রাসের রাজত্ব তৈরিতে সাহায্য করেছে। আমরা দাবি জানাচ্ছি, প্রধানমন্ত্রী তার দুই চোখে সবাইকে দেখুক, এক চোখে নয়। এক চোখে দেখবেন সন্ত্রাস, খুনিদের।’

রোববার (৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নগরীর আলী আহম্মদ চুনকা পাঠাগার ও মিলনায়নতনে নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে ত্বকী হত্যার বিচারের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্জলন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার দুর্বৃত্তদের রক্ষার রাজনীতি করে আসছে। কিন্তু যখন জনগণ দুর্বৃত্ত্বদের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ করে তখন সরকার তাদের বিচারের আয়োজন করেন। এর মাধ্যমে জনগণকে বুঝায় সরকার জনগণের। দুর্বৃত্তদের রক্ষার রাজনীতি করে এ দেশের উন্নয়ণ সম্ভব না। দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে নাটকীয় অভিযান করে লাভ হবে নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা দীর্ঘ ৭ বছর ধরে ত্বকীর বিচার চেয়ে আসছি। বিভিন্ন সময় প্রধানমন্ত্রী আশ্বসত্ব করেছেন বিচার করবেন কিন্তু তা করেননি। এতদিন আলোচনায় ছিল ঢাকা দক্ষিণের যুবলীগ সভাপতিকে খুজে পায় না, ধরা যাচ্ছে না। আজ দেখলাম তাকে ধরা হয়েছে। ধরার প্রেক্ষিতে তার কিছু অপকর্ম দেখানো হয়েছে। এত বছর ধরে এত অপকর্ম করে আসছে ধরা পড়লো না কিন্তু হঠাৎ করে ধরা পরে গেল। এইগুলো সম্পূর্ণ নাটক।’

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি জিয়াউল ইসলাম কাজলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদের সঞ্চালনায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি এড. মাহবুবুর রহমান মাসুম, জেলা নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, জেলা সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চত্রবর্তী, জেলা খেলাঘর আসরের সভাপতি রথীন চক্রবর্তী, জেলা সমমনার সভাপতি দুলাল সাহা, জেলা ন্যাপের সাধারণ সম্পাদক এড. আওলাদ হোসেন, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সভাপতি জাহিদুল হক দিপু, গণসংহতি আন্দোলনের জেলা সমন্বয়কারী তরিকুল সুজন প্রমুখ।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ