সোমবার ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮

তোলারাম কলেজে চালু হবে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন

শনিবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ২২:৫৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সরকারি তোলারাম কলেজে নিয়মিত হাজিরা পদ্ধতি ডিজিটালাইজড করা হবে বলে জানিয়েছেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহ। তিনি বলেন, ‘কলেজে শীঘ্রই ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি চালু করা হবে। নিত্য হাজিরার জন্য ডিজিটাল হাজিরা মেশিন ব্যবহার করা হবে। কোন শিক্ষার্থী ক্লাসে অনুপস্থিত থাকলে তাদের অভিভাবকের মুঠোফোনে এসএমএস চলে যাবে। উপস্থিতির উপর জোর দিতে এই পদ্ধতি গ্রহন করা হচ্ছে।’

শনিবার (২৪ নভেম্বর) বেলা ১২টায় সরকারি তোলারাম কলেজের অনার্স ও মাস্টার্সের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি আরো বলেন, ‘কলেজের সব কিছু ডিজিটালাইজড হতে যাচ্ছে। কলেজের অনেক ক্ষেত্রই ডিজিটালাইজ করা হয়েছে। কলেজের সকল শিক্ষার্থীদের নিয়মিত হাজিরার প্রতি গুরুত্ব দিচ্ছে কলেজ। সে জন্য শিক্ষার্থীদের নিয়মিত হাজিরায় ব্যবহৃত হবে ডিজিটাল মেশিন। যদি কোনো শিক্ষার্থী ক্লাসে অনুপস্থিত থাকে তাহলে তাদের অভিভাবকের কাছে এসএমএস চলে যাবে এমন ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। কলেজের সকল ক্লাসগুলোই হবে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। এমনকি ভর্তির ক্ষেত্রেও আরো ডিজিটাল পদ্ধতি অবলম্বন করা হবে।’

এ সময় অধ্যক্ষ আরও বলেন, ‘আমার আসার আগে কলেজ এতো ডিজিটাল ছিল না। আমি যখন প্রথম কলেজে আসি তখন কলেজে সরকারি তোলারাম কলেজের মিটারগুলো ছিল এনালগ পদ্ধতির। মিটারগুলোর জন্য বিল আসতো বেশি এবং নষ্ট হতো খুবই দ্রুত। আমি লক্ষ্য করলাম বিলগুলো যদি পরিশোধ না করা যায় এবং ডিজিটাল মেশিন আনা না যায় তবে এই রকম বিল আসতেই থাকবে। তাই আমি তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করি এবং কমিটি গঠন করে বিল পরিশোধ করে ডিজিটাল মেশিন বসানোর ব্যবস্থা করি। এখন তোলারাম কলেজে ৬টি ডিজিটাল মিটার ব্যবহার হচ্ছে।’

সরকারি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহের সভাপতিত্বে ও অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শেখ জাকিয়া নূরের সঞ্চালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রাণালয় অতিরিক্ত সচিব ড. মোল্লা জালাল উদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) প্রফেসর মো. শামছুল হুদা। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সরকারি তোলারাম কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর শাহ্ মো. আমিনুল ইসলাম, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক, বাংলা বিভাগের বিভাগীয় অধ্যাপক প্রফেসর সায়রা বেগম, ছাত্র-ছাত্রী সংসদের ভিপি মো. হাবিবুর রহমান রিয়াদ, অনার্স ও মাস্টার্সের কৃতি শিক্ষার্থীসহ কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

সব খবর
শিক্ষাঙ্গন বিভাগের সর্বশেষ