বুধবার ২০ নভেম্বর, ২০১৯

ঝুলে গেলো সোনারগাঁ উপজেলা আ.লীগের কমিটি

মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৫২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি দিয়ে প্রথম থেকেই নেতৃবৃন্দের তোপের মুখে ছিল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক। এই কমিটির বিরুদ্ধে কেন্দ্রে পর্যন্ত অভিযোগ গিয়েছে। বর্তমানে এই কমিটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশের অপেক্ষায় ঝুলে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে তিনি নির্দেশ দিবেন- কমিটি থাকবে নাকি বাতিল ঘোষিত হবে।

গত ১৫ জুলাই জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে ৮ সদস্যের নতুন আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেন। আহ্বায়ক কমিটিতে শামসূল ইসলাম ভূইয়াকে সভাপতি ও ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমানকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়। এছাড়া বাকিদের সদস্য করা হয়।

কমিটি ঘোষণার পরপরই এর বিরোধীতা করেন সোনারগাঁ আওয়ামী লীগের একাংশ। বিরোধী দলের অগ্রে রয়েছেন সাবেক সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, কেন্দ্রীয় মহিলালীগ নেত্রী ড. সেলিনা আক্তার। এই কমিটির বিরুদ্ধে সোনারগাঁয়ের চৌরাস্তায় বিশাল সমাবেশও করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশ। এই কমিটির বিরদ্ধে জেলা আওয়ামী লীগের একাধিক শীর্ষ নেতাও কথা বলেছেন। এক পর্যায়ে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের কাছেও নালিশ দেওয়া হয় এই কমিটি নিয়ে।

এদিকে আওয়ামী লীগের একটি সূত্রে জানা যায়, বিতর্কিত সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটির বিষয়ে সমাধান দেবেন খোদ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর সাথে এই বিষয়ে আলাপের জন্য দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মো. বাদল দলের সাংগঠনিক সম্পাদকের সাথে আলাপ করতে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর কার্যালয়ে যান। সেখানে নওফেলের সাথে কমিটির বিষয়ে আলাপ করেন তারা। অন্যদিকে একই দিন সন্ধ্যায় জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগের একাংশ দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে আলাপ করেন। তারাও কমিটির বিষয়েই দলীয় সেক্রেটারির সাথে আলাপ করেন বলে সূত্র জানায়।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, কমিটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের দলীয় প্রধান। উনি এখন দেশের বাইরে তাই তার সাথে যোগাযোগ করার জন্য সাংগঠনিক সম্পাদককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছি। তিনি চাইলে কমিটি বাতিল হবে। কিন্তু তিনি না বলা পর্যন্ত এই কমিটিই বহাল।

এদিকে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেবেন কমিটির। তার সিদ্ধান্ত দেওয়ার আগ পর্যন্ত দলের সাধারণ সম্পাদক কমিটির কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ