রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১

জুমাতুল বিদা: আমিন ধ্বনিতে অঝোরে কাদলেন মুসল্লিরা

শনিবার, ৮ মে ২০২১, ১৭:১৬

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: বিশ্ববাসীর জন্য রহমতের বাণী নিয়ে আসে পবিত্র মাহে রমজান। অন্য সব জুমার দিনের চেয়ে রমজান মাসের জুমার দিনের তাৎপর্য অনেক। এবারের রমজানের শেষ জুমা ছিল আজ। জুমাতুল বিদায়ে নগরীর মসজিদগুলোতে ছিল মুসুল্লীদের ঢল। শহর থেকে শহরতলীর সবগুলো মসজিদে ছিল মুসুল্লীদের ভিড়। তিল ধারণের স্থান ছিল না মসজিদগুলোতে। তাই মসজিদ পেরিয়ে রাস্তায় নামায আদায় করেছেন তারা। নামায শেষে দোয়ার সময় কান্নায় ভেঙ্গে পরেন সকলে। আমিন ধ্বনিতে চোখের পানিতে জুমাতুল বিদায় জানান মুসুল্লীরা।

শুক্রবার (৭ মে) করোনা ভীতি উপক্ষো করে জুমাতুল বিদা’র নামাজ আদায় করতে নগরীর চাষাঢ়া নূর মসজিদ, ফকিরটোলা মসজিদ, ডিআইটি মসজিদ ও বাগে জান্নাত মসজিদে দেখা যায় মুসুল্লীদের ঢল। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হলেও মসজিদে জায়গা না পেয়ে রাস্তা বন্ধ করে নামায আদায় করেছে মুসুল্লীরা। নামায শেষে মহামারী করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়। দোয়ার সময় আমিন ধ্বনিতে সকলের চোখ দিয়ে অঝোরে পানি পড়তে থাকে।

রহমত, বরকত, মাগফিরাত ও নাজাতের মাস রমজানের শেষ জুমা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে পালন করে থাকেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। একই সঙ্গে এ দিনকে আল কুদস দিবস হিসেবেও অবিহিত করা হয়।জুমার নামাজ শুরুর আগেই সব মসজিদ কানায় কানায় ভরে যায়। মসজিদের ভেতরে মুসল্লীদের সংকুলান না হওয়ায় অনেককেই বাইরে নামাজ আদায় করতে হয়। জুমাতুল বিদার খুতবায় উচ্চারিত হয় ‘আলবিদা, আল বিদা, ইয়া শাহর রামাদান। অর্থাৎ বিদায়, বিদায় হে মাহে রমজান। জুমার দুই রাকাত নামাজ শেষে মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে এবং নারায়ণগঞ্জসহ গোটা দেশ ও জাতির সুখ, সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। দোয়া করা হয় বছরের বাকী দিনগুলোতে যেন পাপ ও অকল্যাণ থেকে মুক্ত থাকা যায়। এসময় সকলের চোখ সজল হয়ে ওঠে।

ইসলামী চিন্তাবিদদের মতে, রমজান মাসের সর্বোত্তম বা উৎকৃষ্ট দিবস হলো জুমাতুল বিদা। রমজান মাসের শেষ শুক্রবার অথবা শেষ জুমাবারের দিন জুমাতুল বিদা হিসেবে মুসলিম বিশ্বে পরিচিত। এ মাসের শেষ জুমার দিন পালিত হয় আল কুদস দিবস। তাই দিনটির গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম।

সব খবর
ধর্ম ও নৈতিকতা বিভাগের সর্বশেষ