সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯

ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত যুবক প্রতিবন্ধি ছিল

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ২১:৫১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জে মিজমিজি আলামিন নগর এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে স্থানীয়দের গণপিটুনিতে নিহত যুবকের পরিচয় মিলেছে। নিহত যুবকের নাম মো. সিরাজ। সে বোবা ও বধির ছিল বলে নিশ্চিত করেছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ। নিহত সিরাজ সিদ্ধিরগঞ্জের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। তার পিতার নাম আব্দুর রশিদ ও মাতার নাম কমলা খাতুন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহীন শাহ্ পারভেজ বলেন, ছেলেটি স্বাভাবিক ছিল না। সে বোবা ও বধির ছিল। যার ফলে তাকে মারধর করা হলেও বিরোধীতা করে কোন কিছু বলতে পারেনি।

শনিবার (২০ জুলাই) সকাল ৮টায় সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজির আলামিন নগর এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে প্রতিবন্ধী সিরাজকে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। গুরুতর অবস্থায় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাখাওয়াত হোসেন জানান, ছেলে ধরা সন্দেহে অজ্ঞাত এক যুবককে গণপিটুনি দেয় সাধারণ জনগণ। খবর পেয়ে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, স্থানীয়রা যে বাচ্চা মেয়েটিকে ধরেছে বলেছিল তার অভিভাবক জানায়, তার মেয়ে স্কুলে ক্লাস করছে। মেয়েটি স্থানীয় আইডিয়াল কিন্ডার গার্ডেনের ছাত্রী। প্রাথমিকভাবে ছেলে ধরার ব্যাপারে কোন সত্যতা মেলেনি। নিহত যুবক গুজবের শিকার বলে ধারণা হচ্ছে।

এ ঘটনার দুই ঘন্টা পর সকাল সোয়া দশটায় মিজমিজির শাপলা চত্বর এলাকায় ছেলে ধরা সন্দেহে শারমিন (২০) নামে এক নারীকে গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয়রা। পুলিশ খবর পেয়ে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ