মঙ্গলবার ২৬ মে, ২০২০

ছেলের নেগেটিভ এলেও করোনা আক্রান্ত ছিলেন সেই বাবা

মঙ্গলবার, ১২ মে ২০২০, ১৯:০৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে মারা যাওয়া রিমন হোসেন (৩৪) করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। তবে করোনা পরীক্ষায় পজেটিভ পাওয়া গেছে ছেলে মারা যাওয়ার এক ঘণ্টা পর স্ট্রোক করে মারা যাওয়া রিমন হোসেনের বাবা ইয়ার হোসেনের নমুনায়। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ও মৃতদের স্বজনদের সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গত সোমবার (১১ মে) ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যায় রিমন হোসেন। ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে স্ট্রোক করেন বাবা হাজী ইয়ার হোসেন। পরে তিনিও মারা যান। তিনি সিদ্ধিরগঞ্জের সরদারপাড়া মসজিদ কমিটির সভাপতি ছিলেন।

করোনা পরীক্ষায় হাজী ইয়ার হোসেনের পজেটিভ আসায় বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে জানিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) রুবেল হাওলাদার বলেন, হাজী ইয়ার হোসেনের করোনা পজেটিভ এসেছে। তবে তার ছেলে রিমনের নেগেটিভ এসেছে। তাদের বাড়িটি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। তাদের শারীরিক অবস্থা জানতে সার্বক্ষনিক খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এখন পর্যন্ত অন্য কারোর কোন উপসর্গ নেই।

ইয়ার হোসেনের ভাই সানিক হোসেন জানান, গত ৯ মে রূপগঞ্জের গাজী কোভিড-১৯ পিসিআর ল্যাবে তার ভাই ইয়ার হোসেন, ভাতিজা রিমন ও রিমনের বোনের করোনা পরীক্ষা করানো হয়। তিনজনেরই করোনা উপসর্গ ছিল। ১১ মে ভোরে রিমনের মৃত্যুর খবর শুনে বাবা ইয়ার হোসেন স্ট্রোক করেন এবং পরে মারা যান। ওইদিন বিকেলে করোনা পরীক্ষার রিপোর্টে ইয়ার হোসেন পজেটিভ বলে জানতে পারেন। তাদের বাড়ি লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে। ওই বাড়িতে তাদের চার ভাইয়ের পরিবারের ১২ জন সদস্য বসবাস করেন।

সানিক হোসেন বলেন, এই দেশে কোন রোগেরই চিকিৎসা নাই। নিজের চোখের সামনে দেখছি। ভাতিজারে নিয়া সব হাসপাতাল দৌড়াইছি কেউ ভর্তি রাখে নাই। পোলাডায় মারা গেলো সেই শোকে মারা গেলো ভাই। দেশে যে চিকিৎসা নাই এইডা দয়া কইরা আপনারা লেখেন। চিকিৎসা সেবা যাতে ভালো করে। ডাক্তার-নার্স তো রোগীদের ধইরাও দেখে না।

 

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ