মঙ্গলবার ০২ মার্চ, ২০২১

চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়

বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৫৬

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটিতে সাংসদ শামীম ওসমান, তার স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি এবং পুত্র ইমতিনান ওসমান অয়ন থাকবেন কিনা তা নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি৷ বুধবার (২০ জানুয়ারি) কমিটির পরিচিতি সভাতে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হলেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি নেতারা৷

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলী বলেন, ‘আমরা চাই এমপি সাহেবসহ তারা তিনজনই কমিটিতে থাকবেন৷ কিন্তু এমপি সাহেব নিজেই চিঠি দিয়েছেন তাদের পদে অন্য কাউকে সুযোগ দেয়ার জন্য৷ এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি৷’

তিনি আরও বলেন, ‘এমপি সাহেবকে অনুরোধ করবো তারা যেন কমিটিতে থাকতে আপত্তি না করেন৷ তারপরও যদি তিনি দ্বিমত পোষণ করেন তবে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে৷ সপ্তাহখানেকের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে৷’

সাংসদ শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তিনবারের নির্বাচিত সাংসদ হলেও তার স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি ও একমাত্র ছেলে ইমতিনান ওসমান অয়ন সরাসরি দলের কোনো পদ-পদবীতে ছিলেন না। তবে গত ১০ জানুয়ারি ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কার্যকরী সদস্যের পদ পান তারা। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে প্রথম তিন কার্যকরী সদস্য পদে রয়েছেন সাংসদ সাংসদ শামীম ওসমান, সালমা ওসমান লিপি ও ইমতিনান ওসমান অয়ন। থানা আওয়ামী লীগের কার্যকরী পদে সাংসদের স্ত্রী-সন্তানের নাম আসার পর এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়।

সাংসদ শামীম ওসমানের স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান। তবে সাংসদ পুত্র ইমতিনান ওসমান অয়ন এর পূর্বে কোনো সংগঠনের পদে না থাকলেও ছাত্রলীগের নেপথ্যে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এবার মা ও ছেলে সরাসরি আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে পদার্পন করেন। তবে এটা চান না সাংসদ শামীম ওসমান। তিনি কার্যকরী কমিটির সদস্য পদ থেকে সরে যেতে চান। এ সংক্রান্ত লিখিত একটি চিঠিও দেন সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল ও সাধারণ সম্পাদক এম শওকত আলীর কাছে।

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ