বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

চার সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ মামলার আসামিদের গ্রেফতার নেই

বুধবার, ২৯ মে ২০১৯, ১৫:৪৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: আড়াইহাজারে ১৫ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলার মূল আসামিরা। র্দীঘদিন ধরে এলাকার চার বখাটে ওই গৃহবধূকে মোবাইলে উত্ত্যক্ত করে আসছিল বলে অভিযোগ নির্যাতিতার। তাতে তিনি সাড়া দিচ্ছিলেন না। এক পর্যায়ে চার বখাটে পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

মামলায় ভুক্তভোগী উল্লেখ করেন, গত ৬ মে সন্ধ্যায় তিনি বাড়ির বাইরে বের হলে একা পেয়ে সেলিম নামে এক বখাটে তাকে মুখ চেপে ধরে কাপড় পেঁচিয়ে পাশের একটি ধান ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিল একই এলাকার আবুল, সোহেল ও নাঈমউদ্দিন। হাত-পা ও মুখ চেপে ধরে রাখে প্রথমে সেলিম তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় নাঈমউদ্দিন মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে। পরে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

তিনি আরো জানান, সামাজিক লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি পরিবারের লোকজনের কাছে গোপন রাখেন। কিন্তু সংঘবদ্ধ এ ধর্ষকচক্র ধারণকৃত ওই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করার হুমকি দিয়ে তাকে ফের ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পরে গৃহবধূ পরিবারকে বিষয়টি জানায়। ধর্ষিতা ওই নারী চার সন্তানের জননী ও স্থানীয় এক রিকশা চালকের স্ত্রী।

এ ঘটনায় গত ১৬ মে ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে একটি মামলা করেছেন। আসামিরা হলো স্থানীয় গাজীপুরা এলাকার ছায়েদ আলীর ছেলে সেলিম, ছালামের ছেলে মাঈনউদ্দিন, কফিলউদ্দিনের ছেলে সোহেল একই এলাকার নিজামউদ্দিনের ছেলে আবুল। তবে পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি তদন্ত শফিকুল ইসলাম বলেন, মামলার তদন্তে বেশ অগ্রগতি হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামিদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হবে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ