মঙ্গলবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮

চলার কথা তিনটি, চলছে একটি, ভোগান্তি

বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৮

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ৫নং ঘাট টু বন্দরঘাট খেয়াঘাটে ময়মনসিংহ পট্টি দিয়ে ফেরী সার্ভিস উদ্বোধনের দিন ৩টি ফেরী দিয়ে সার্ভিস শুরু করা হলেও ঘাটে এখন ফেরীর সংখ্যা মাত্র একটি। যদিও ঈদের পর এই ঘাটে আরও ২টি ফেরি দেওয়ার কথা ছিল।

বুধবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সরেজমিনে দেখা যায়, ঘাটে মোট ৫টি ফেরীর সংখ্যা থাকলেও চলছে ১টি। তবে ঘাটে যাত্রীসংখ্যা নেই বললেই চলে। যানবাহনের সংখ্যাও খুবই কম। কিছু সংখ্যক ভ্যান, মোটরসাইকেল, রিক্সা ছাড়া কিছুই নেই। এছাড়া এপার থেকে ওপার যাওয়ার জন্য যাত্রীরা ফেরীর পরিবর্তে ট্রলার ও নৌকা ব্যবহার করছে। ফেরীতে উঠার রাস্তাটি ভঙ্গুর হওয়ার কারণে যানবাহন সংখ্যা কম।

৫নং ঘাটে ট্রলার থেকে নামার পর কথা হয় বন্দরবাসী শরিফ মিয়ার সাথে। তিনি বলেন, একটা ফেরী চলে। ফেরী গিয়ে লেট (বিলম্বে) করে আসে। ফেরীতে উঠলে যাতায়াতে সময় অনেক বেশি লাগে। এজন্য ট্রলারে উঠি। নয়তো ফ্রিতে পাইলে কে টাকা খরচ করে ট্রলারে উঠে।

ফেরীর সুপারভাইজার মনির হোসেন বলেন, আমাদের ঘাটে ফেরী ৩টা না ২টা ছিল। ২টা থেকে ১টা চলছে। আমাদের এই ঘাটে যাত্রীর সংখ্যা খুবই কম। অন্যদিকে নবীগঞ্জ ঘাটে যাত্রী সংখ্যা বেশি। সেখান থেকেই ১টি ফেরী এখানে নিয়ে আসা হয়েছিল। কিন্তু এখন ওইখানে আবার নিয়ে গেছে। ওইখানে একটা ফেরী চলে আরেকটা বন্ধ থাকে। একটা ফেরীতে সমস্যা হলে আরেকটা চালানো হয়। একটা ফেরী চলার কারণে সময় কিছুটা বেশি লাগে। এইটার কারণেই যাত্রী সংখ্যা কম। আর ফেরীতে উঠার রাস্তা ভাঙা হওয়ার কারণে কোন গাড়ি ফেরঅতে উঠানো যায় না। ছোট গাড়িগুলোই ঝুঁকি নিয়ে ফেরীতে উঠে। যেকোন সময় একটা এক্সিডেন্ট (দূর্ঘটনা) ঘটতে পারে।

উল্লেখ্য,২১ নারায়ণগঞ্জর ৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান আগস্ট শীতলক্ষার ৫নং ঘাট থেকে বন্দরঘাট খেয়াঘাটে ফেরী সার্ভিস উদ্বোধন করেন। ৩টি ফেরী দিয়ে এই রূটের সার্ভিস চালু করা হয়। এবং ঈদের পর আরও দুইটি ফেরী চালু করা হবে বলা হয়েছিল।

সব খবর
জনদুর্ভোগ বিভাগের সর্বশেষ