শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

ঘোষিত মজুরী প্রত্যাখ্যান ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের

শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২২:১৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: তৈরি পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা করার সরকারি ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করেছে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র। এ সময় নিউ টেক্স এশিয়া গার্মেন্ট শ্রমিকদের সংকট সমাধানের দাবী জানানো হয়।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেছে শতাধিক পোশাক শ্রমিক। এতে অবিলম্বে ঘোষিত মজুরি পুনর্বিবেচনা করে ১৬ হাজার টাকা নির্ধারণের দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এম এ শাহীন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা দুলাল সাহা, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল হাই শরীফ, সাবেক সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম বাবুল প্রমুখ।

এ সময় কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার বলেন, ‘এই ঘোষনা মানা যায় না। বৃহস্পতিবারের ঘোষনাটি একটি অমানবিক, অনৈতিক ঘোষনা। শ্রমিকদের সাথে অন্যায় করা হয়েছে। যেখানে ৪ জনের একটি পরিবারের জীবন যাপনের জন্য ১৬০০০ টাকা দরকার সেখানে কীভাবে ৮০০০ টাকায় জীবিকা নির্বাহ করবে। এই ঘোষনা শ্রমিকদের পক্ষে নয় মালিকদের পক্ষে দেয়া হয়েছে। রানা প্লাজার ধসের পরে এই সকরকার শ্রমিকদের প্রতি ব্যবস্থা না নিয়ে র্গামেন্টস মালিকদের পক্ষে ব্যবস্থা নিয়েছে। এই সরকার শ্রমিকদের পক্ষে দাড়ায় নি। একদিকে শ্রমিকরা না খেয়ে মরছে অন্যদিকে মালিকরা কোটি কোটি টাকার মালিক হচ্ছে। ’

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এম এ শাহীন বলেস, ‘র্গামেন্টস শ্রমিকদের মজুরি জন্য আড়াই বছর আন্দোলন করা হয়েছে। র্গামেন্টস শ্রমিকদের মজুরি ঘোষনা করা হয়েছে ৮০০০ টাকা কিন্তু আমরা ক্ষোভের সাঙ্গে আমরা এই ঘোষনা প্রত্যাক্ষান করছি এবং ১৬০০০ টাকা মজুরি বাস্তবায়ন করার দাবি করছি। গতকালের সংবাদ সংম্মেলনে শ্রমিকদের নূন্বতম মজুরি ৮০০০ টাকা ঘোষনা করা হয়। কিন্তু একজন শ্রমিকের পরিবার ৮০০০ টাকায় চলতে পারে না।’

অন্যান্য বক্তারা বলেন, ‘মজুরি বৃদ্ধির নামে সরকার ও মালিকরা গার্মেন্ট শ্রমিকদের সাথে ধোঁকাবাজি করেছে। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের শ্রম প্রতি মন্ত্রী মজিবুল হক চুন্নু গার্মেন্ট শ্রমিকদের নিম্নতম মজুরি ৮ হাজার টাকা ঘোষণা করেছে। ঘোষিত মজুরি বর্তমান বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্য পূর্ণ নয়। মজুরি নির্ধারণের ক্ষেত্রে শ্রমিকদের সুস্থভাবে বেঁচে থাকা, সন্তানদের শিক্ষা-চিকিৎসা ও তাদের জীবনমান উন্নয়নের বিষয় বিবেচনা করা হয়নি। ৮ হাজার টাকা মজুরিতে একজন শ্রমিক পরিবার কোন ক্রমেই খেয়ে পড়ে জীবন ধারণ করতে পারবেনা। ঘোষিত মজুরি পূর্ণ বিবেচনা করে অবিলম্বে নিম্নতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করতে হবে। সরকার ২ জুলাই ১৮ ইং রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প কারখানা শ্রমিকদের জন্য নিম্নতম মোট মজুরি নির্ধারণ করেছে সর্বসাকুল্যে ১৭ হাজার টাকা। সরকারের এই ঘোষণায় গার্মেন্ট শ্রমিকরা মনে করেছিল তাদের ১৬ হাজার টাকা মজুরির দাবী মেনে নিয়ে তা বাস্তবায়ন করা হবে কিন্তু সরকার ও মালিকরা একাট্টা হয়ে গার্মেন্ট শ্রমিকদের সাথে প্রতারণা করে মজুরি ঘোষণা করেছে অর্ধেক কম। এই ৮ হাজার টাকা মজুরির ঘোষণা গার্মেন্ট শ্রমিকরা মানে না মানবে না। শ্রমিকদের প্রাণের দাবী ১৬ হাজার টাকা মজুরি ঘোষণা করতে হবে। সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে নারায়ণগঞ্জের কিল্লারপুল এলাকার নিউ টেক্স এশিয়া গার্মেন্ট শ্রমিকদের সংকট সমাধানের দাবীও জানান।’

সব খবর
রাজনীতি বিভাগের সর্বশেষ