বৃহস্পতিবার ০৪ জুন, ২০২০

করোনা সংকটে নারায়ণগঞ্জে ব্যবসায়ী নেতা ও সংগঠনের নিরবতা

সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৯:৫৬

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: শিল্পাঞ্চল হিসেবে বন্দর নগরী নারায়ণগঞ্জের বেশ সুখ্যাতি রয়েছে। নিট পোশাক শিল্পের বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে এই জেলায়। দেশের সবচেয়ে বড় হোসিয়ারি ব্যবসাও এই নারায়ণগঞ্জকে ঘিরে। এছাড়াও রয়েছে সুতাসহ চাল, ডালের বৃহৎ ব্যবসাকেন্দ্র নারায়ণগঞ্জের নিতাইগঞ্জ। ব্যবসা দিয়ে সমৃদ্ধ এই জেলা। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকটকালীন সময়ে সেই সব বৃহৎ সেই প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবসায়ীরা নেই জেলার গরীব মানুষগুলোর পাশে। বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে এসব ব্যবসায়ী নেতা ও সংগঠনগুলোকে সরব থাকতে দেখা গেলেও করোনা মোকাবেলার এই সঙ্কটকালীন সময়ে মানুষের পাশে নেই বাণিজ্য নগরী নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী নেতা কিংবা তাদের সংগঠন। নিজেদের শ্রমিকদেরও পাশে দাড়ায়নি কোন সংগঠন।

নারায়ণগঞ্জে নব্বই লাখেরও বেশি মানুষের বসবাস। করোনা ভাইরাসে যখন অর্থ উপার্জনের পথগুলো বন্ধ তখন এই জেলায় সরকারি তহবিল থেকে সাড়ে সাত হাজার পরিবারের জন্য এসেছে ত্রাণ। কিন্তু আয়তনে ছোট হলেও বিপুল সংখ্যক জনসংখ্যার এই জেলাতে এই ত্রাণ অপ্রতুল। গত ৫ দিন ধরে কর্মহীন বিভিন্ন সেক্টরের কয়েক লাখ শ্রমিক, দোকানের বিক্রয়কর্মী, হকার, রিকশা-ভ্যান চালকদের মতো নি¤œশ্রেণির মানুষরা রয়েছেন সংকটে। এদের নেই কোন সঞ্চয়। প্রতিদিনের আয় দিয়েই চলে সংসার। কর্মহীন হয়ে পড়ায় পুরো পরিবার নিয়ে এখন তারা খাদ্য সঙ্কটে ভুগছে। সংকটকালীন এই সময়ে ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের সাহায্য-সহযোগিতা কামনা করছিল এই মানুষগুলো। ব্যক্তিগত উদ্যোগে কয়েকজন রাজনীতিবিদ মানুষের পাশে দাড়ালেও বিকেএমইএ, চেম্বার অব কমার্স, ইয়ার্ন মার্চেন্টের মতো বৃহৎ ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো রয়েছে নিরব।

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জে রয়েছে ৮টি জাতীয় ও ৩৪টি স্থানীয় ব্যবসায়িক সংগঠন। এগুলো হল- নারায়ণগঞ্জে নিট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স এন্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিকেএমইএ), নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রি, বাংলাদেশ ইয়ার্ন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ক্লথ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ হোসিয়ারি সমিতি, বাংলাদেশ নিট ডাইং ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ নিটিং ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ পাট আড়ৎদার সমিতি, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি নারায়ণগঞ্জ জেলা, নারায়ণগঞ্জ লবণ আড়ৎদার মালিক সমিতি, নারায়ণগঞ্জ জেলা মিনিবাস মালিক ঐক্যজোট, নারায়ণগঞ্জ লৌহ ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, নারায়ণগঞ্জ চট বস্তা ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, নারায়ণগঞ্জ গম চাল আড়ৎদার মালিক সমিতি, জেলা ট্রাক মালিক সমিতি, নারায়ণগঞ্জ সু মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন, জুয়েলারি সমিতি নারায়ণগঞ্জ, আটা ময়দা মিল মালিক সমিতি, প্রেস মালিক সমিতি নারায়ণগঞ্জ, সিটি বন্ধন পরিবহন লিমিটেড, বাংলাদেশ রেস্তোরা ও মিষ্টান্ন ভান্ডার মালিক সমিতি, বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, নারায়ণগঞ্জ ফ্রেন্ডস্ মার্কেট বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতি, নারায়ণগঞ্জ জেলা টাইলস দোকান মালিক সমিতি, ডাল মিল মালিক ও ট্রেডিং গ্রুপসহ আরও অনেক ব্যবসায়ী সংগঠন রয়েছে এই নারায়ণগঞ্জে।

এই সংগঠনগুলোর শীর্ষ পদে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জেরই স্বনামধন্য ব্যবসায়ীগণ। কিন্তু তারা মানুষের পাশে দাড়াতে ব্যর্থ হয়েছেন। এই সংকটের সময়ে তাদের সহযোগিতা কামনাকারী নিম্নবিত্ত মানুষগুলোও তাই হতাশ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইয়ার্ন মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি লিটন সাহা বলেন, সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করায় আমরা আমাদের শ্রমিকদের জন্য কিছু করতে পারিনি। তবে আগামী ৪ তারিখ পর্যন্ত তো সব বন্ধ। যদি ৫ তারিখ সবকিছু খোলা হয় তাহলে আগামী ৬ কিংবা ৭ তারিখের মধ্যে আমরা আমাদের সকল শ্রমিকদের মাঝে চাল, ডাল, আলু, লবনসহ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করবো।

বাংলাদেশ হোসিয়ারি সমিতির সভাপতি নাজমুল আলম সজল বলেন, প্রতিষ্ঠানের মালিকরা তাদের শ্রমিকদের দেখবে। কোন শ্রমিক যদি বিপদগ্রস্থ থাকে তাহলে মালিকরা ব্যবস্থা নেবে। সমিতির মাধ্যমে তাদের জন্য কিছু করতে পারছি না।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ