বৃহস্পতিবার ০৯ এপ্রিল, ২০২০

করোনায় স্তব্ধ নারায়ণগঞ্জ (ভিডিওসহ)

বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ ২০২০, ১৫:৩৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: সারাদেশের মতোই নারায়ণগঞ্জেও পড়েছে করোনা ভাইরাসের প্রভাব। করোনা সংক্রমণ রোধে সারাদেশে ১০ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সকল দোকানপাট ও গণপরিবহণ। একই সঙ্গে ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে প্রশাসন থেকে।

এদিকে জনসমাগম রোধে মাঠে নেমেছে র‌্যাব, সেনাবাহিনী, পুলিশ। নিয়মিত টহলের মাধ্যমে দোকানপাট ও জনসমাগম বন্ধে কাজ করে যাচ্ছেন তারা। ফলে খাবার ও ওষুধের দোকান ব্যতিত বন্ধ রয়েছে সবকিছু। নগরীর ফুটপাত সম্পূর্ণ ফাঁকা। শহরে নেই মানুষের আনাগোনা। ব্যস্ততম এই শহর যেন স্তব্ধ হয়ে আছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দুপুর ১২টায় নারায়ণগঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখা যায়, পুরো শহর যেন জনশূন্য। শহরের প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়কে প্রতিদিনের মত সেই ব্যস্ততা আর নেই। নেই চিরচেনা সেই যানজটের চিত্র। সম্পূর্ণ ফাঁকা সড়কটিতে চলাচল করতে হাতেগোনা কয়েকটি রিকশা। একই সঙ্গে সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার সংলগ্ন সকল চায়ের দোকান। নিত্যদিনের কোলাহল বিহীন চাষাঢ়া বালুর মাঠ এলাকা সম্পূর্ণ স্তব্ধ হয়ে আছে।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী নারায়ণগঞ্জে বন্ধ রয়েছে সকল গণপরিবহন। শহরের ১নং রেলগেট সংলগ্ন প্রধান বাস টার্মিনালে দেখা যায়, একটির পর একটি সারিসারি বাস দাঁড়ানো। বন্ধ রয়েছে সকল বাস। টিকেট কাউন্টারে নেই কেউ। বাসের অপেক্ষায়ও কোনো যাত্রীদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেয়া যায়নি। বাসের পাশাপাশি বন্ধ রয়েছে শহর থেকে ছেড়ে যাওয়া লঞ্চ ও ট্রেন। লঞ্চ টার্মিনাল ঘাটে বাধা লঞ্চ ও কিছু শ্রমিক ছাড়া দেখা যায়নি কাউকে। শহরের কেন্দ্রীয় রেল স্টেশনে কিছু সংখ্যক ছিন্নমূল মানুষের দেখা মিললেও দেখা যায়নি কোনো যাত্রীর।

এদিকে সকালে শহরে টহল দিয়েছে সেনা সদস্যরা। এ সময় শহরে থাকা মানুষদের ঘরে থাকার পরামর্শ দেন তারা। একই সঙ্গে ওষুধ, খাবার দোকান, কাচাবাজার ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ রাখতে বলেন তারা। সেনাবাহিনীর মতই শহরে টহল দিতে দেখা যায়, র‌্যাব সদস্যদের। সেনা সদস্যদের ন্যায় তারাও সকলকে বাড়িতে অবস্থান করার নির্দেশনা দেন।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ