সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

কটন ক্যাজুয়ালে জমজমাট ফ্যাশন

শনিবার, ১০ মার্চ ২০১৮, ১৪:১১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ ডটকম: সকালে ঠাণ্ডা, দুপুরে গরম। সন্ধ্যায় আবার শীতের ভেলকিবাজি। আবহাওয়ার এমন মশকারা যেন লেগেই রয়েছে। কোন পোশাক পরে স্বস্তি পাওয়া যাচ্ছে না। তবে এই সময়ে সুতি পরম বন্ধু হতে পারে। পোশাকে যেকোনও ডিজাইনের ক্ষেত্রে সুতি এক বাক্যে নিজেকে আপোস করে। ট্রেন্ডি এই নগরীতে ফ্যাশনটা যেমন গুরুত্ব বহন করে তেমনি আরামের বিষয়টিও কেউ হালকাভাবে দেখে না। এখন প্রশ্ন আসতে পারে তাহলে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমার পোশাকটি কেমন হবে?

এখনকার মেয়েরা দুহাতে গোটা পৃথিবীই সামলাচ্ছে। চোখে মুখে ব্যস্ততা। তাই ফ্যাশন দুনিয়ার অনুসঙ্গগুলোও ঘুরছে তাদের কথা চিন্তা করে। জবরজং পোশাকে আজ আর বিশেষায়িত্ব নেই। সবাই ঝুকছে ক্যাজুয়াল পোশাকের দিকে। ছিমছাম পোশাক সবাই পছন্দ করছে। হরেক মোটিফে উজ্জ্বল পোশাকের জমিন নানা শেডে। ফ্যাশন ডিজাইনাররাও সময়ের সৌন্দর্যকে ধরার চেষ্টা করছেন। এখনকার পোশাক হিসেবে প্রাধান্য পাচ্ছে সিঙ্গেল কামিজ, থ্রি-পিস, লং স্কার্ট-টপস, টি-শার্ট ও ফতুয়া। অফিস কিংবা নানান প্রোগ্রামে এসব পোশাক নিজেকে স্মার্ট করে তুলবে অনায়াসে। নিজের রুচির সঙ্গে বোঝাপড়া করে পোশাক নির্বাচন করতে হবে।

ডিজাইনাররা প্রাধান্য দিয়েছেন আরামদায়ক কাপড় আর ক্যাজুয়াল আউটফিটে। রঙের ক্ষেত্রে গুরুত্ব পাচ্ছে হালকা রং। বিবিয়ানার কর্ণধার লিপি খন্দকার বলেন, এসময়ের জন্য সুতি কাপড়ই গ্রহণযোগ্য। ডিজাইনের ক্ষেত্রে ছিমছাম ও ক্যাজুয়াল কাট গুরুত্ব পাচ্ছে। সুতির কাপড়ে তৈরি করছি লং কাটের গাউন। লং স্কার্ট সঙ্গে ফুল স্লিভ টপস বেশ চলছে। তবে মজার বিষয় হলো এখন সুতি কাপড়ের কুর্তিতে নানান ঢঙের কুচি লাগিয়ে গর্জিয়াস পোশাক তৈরি করা হচ্ছে। তবে ফিটিং কাট এড়িয়ে কাপড়ের কাটিংয়ে ঢিলেঢালা ভাব রাখা হচ্ছে।

গতানুগতিক সালোয়ার-কামিজের পাশাপাশি সুতি কাপড়ে টপস, পালাজ্জো, টি-শার্ট, কাফতানের কাটিং ও ডিজাইনে এবার বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। বেশিরভাগ কাপড়ই নিট, ভয়েল, সুতি লিলেন। এগুলো পরতে আরামদায়ক। কাফতান, টপস, কুর্তা, টি-শার্টে এসেছে নতুন ডিজাইন। ডিজাইন লেস, পাইপিং, অ্যামব্রয়ডারি করা হয়েছে। কাফতানে টাইডাই, কুর্তায় কোমরের কাছে বেল্ট, বুকের মাঝখানটায় অনেকগুলো কুঁচি বসিয়ে ডিজাইনে নতুনত্ব আনা হয়েছে।

সুতি কাপড় সব সময়ের জন্যই গ্রহণযোগ্য। সহজেই ঘাম শুষে নেয় বলে সুতি কাপড় শরীরে অস্বস্তির সৃষ্টি করে না। শুধু বড়দের জন্য নয় এটা নরম বলে বাচ্চাদের জন্য অত্যন্ত উপযোগী। তাছাড়া বৃদ্ধরাও সুতি পোশাক অনায়াসে পরতে পারে। সুতি কাপড় পাওয়া যায় নানা রঙের ও প্রিন্টের। একরঙা সুতি কাপড়ে ব্লক, বাটিক, টাইডাই, সূচিকর্ম, স্প্রে ইত্যাদির কাজ করে পোশাক আরো আকর্ষণীয় ও অনবদ্য করে তোলা যায়।

তাহলে এই বিচ্ছিরি আবহাওয়া পরিবর্তনের সময় আরামদায়ক কাপড়েই জমে উঠুক আপনার ফ্যাশন।

সব খবর