বৃহস্পতিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯

এক ঘন্টার বৃষ্টিতে নারায়ণগঞ্জ শহর উত্তাল নদী! (ভিডিওসহ)

শনিবার, ১৩ জুলাই ২০১৯, ২২:৩১

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: মাত্র এক ঘন্টার বৃষ্টিতে পানিতে ডুবেছে শহর৷ ঘন্টব্যাপী বৃষ্টিতে হাঁটু সমান পানিতে ডুবে যায় শহরের সড়ক, দোকানপাটসহ নিচু এলাকা৷ সড়ক নয় যেন উত্তাল নদী৷ সড়ক পানিতে ডুবে যাওয়ার কারণে বাস, ট্রাক চলাচলের সময় পানির বড় ঢেউ তুলতে দেখা যায়৷ ঢেউয়ের কারণে পানি বিভিন্ন দোকানে ঢুকে যায়৷

শনিবার (১৩ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত এ মুষুলধারে এই বৃষ্টির কারণে ডুবে যায় শহরের প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক ও তার ফুটপাত৷

প্রবল বৃষ্টির কারণে তলিয়ে যায় ২নং রেলগেট থেকে চাষাড়া সড়কের পুরোটাই। কিছু কিছু জায়গায় পানি ফুটপাতে পর্যন্ত উঠে গিয়েছে। এতে করে ভোগান্তিতে পড়তে হয় রাস্তায় যাতায়াতরত পথচারীদের। শুধু তাই না, এই ভারী বৃষ্টিতে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে দোকানদার ও হোটেল ব্যবসায়ীরা। কেননা, ফুটপাত পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় আশেপাশের নিচু জায়গাগুলোর দোকান ও হোটেলেও পানিতে ডুবে যায়৷

লোকনাথ হোটেলের মালিক সঞ্জয় সাহা জানান, হোটেলের ভিতরে পানি ঢুকে পড়ায় কোন কাস্টমার ভিতরে ঢুকছে না। বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তেমন কেনা-বেচা হয় নাই কারণ, কোন কাস্টমারই পানির মধ্যে পা ঢুবিয়ে বসে খেতে আগ্রহী না।

পথচারী মাবুদ সওদাগর বলেন, চাষাড়া বালুর মাঠ থেকে শুরু প্রেস ক্লাবের সামনে হয়ে চাষাড়া পর্যন্ত হাঁটু সমান পানি মাড়িয়ে হেটে আসলাম।

ভারী বর্ষণের ফলে রাস্তার আশে-পাশের ড্রেনগুলোও ডুবে গেছে যার ফলে ড্রেনের পানি আর বৃষ্টির পানি মিশে একাকার অবস্থা। যার দরুণ বেশিরভাগ পথচারী এই পানি মাড়িয়ে যাতায়াত করতে চাইছে না।

অন্যদিকে, বৃষ্টির কারণে রিকশা ভাড়া জায়গাভেদে ১০-১৫টাকা ভাড়া বাড়িয়ে চাইছে রিকশাওয়ালারা। এত করে ভোগান্তিতে পড়ছে যাত্রীরা। একে বৃষ্টির সময় রিকশা পাওয়া দুস্কর এর মধ্যে হাতে-গোনা দু-চারটি যা রিকশা পাওয়া যাচ্ছে তারাও ভাড়া চাইছে অতিরিক্ত।

যাত্রী শান্তা হক জানান, চাষাড়া থেকে ২নং রেলগেইট যাওয়ার জন্য রিকশাওয়ালারা ২০ টাকার ভাড়া চাইছে ৪০ টাকা। একে রিকশা পাচ্ছি না এর মধ্যে তারা অতিরিক্ত ভাড়া চাচ্ছে। তাই এক প্রকার বাধ্য হয়েই যেতে রাজি হলাম।

এদিকে পানি থাকাতে রিকশা চালাতে সমস্যা হয় জানিয়ে মোবারক হোসেন নামে এক রিকশাওয়ালা বলেন, এইযে রাস্তায় পানি তার উপর বৃষ্টি৷ রিকশা টেনে নিয়ে যাওয়া যায় না৷ নিয়ন্ত্রণ থাকে না রিকশা চালানোর সময়৷

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ