বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

উৎসব আনন্দে না’গঞ্জে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর

বুধবার, ৫ জুন ২০১৯, ১১:৩২

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: টানা একমাস সিয়াম সাধনার পর আসে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর৷ শাওয়ালের এক ফালি বাঁকা চাঁদ সকলের মনে আনন্দের ঝড় তুলে দেয়৷ নানা আয়োজন, আনন্দ আর উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও পালিত হচ্ছে মুসলমানদের বড় উৎসবটি। দীর্ঘ ২৯ দিন সিয়াম সাধনার পর আজ বুধবার এ ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে।
 
যদিও এবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়৷ মঙ্গলবার (৪ জুন) সন্ধ্যায় চাঁদ দেখা কমিটি জানায়, চাঁদ দেখা যায়নি৷ কিন্তু পরবর্তীতে রাত এগারোটার পর পুনরায় বৈঠকের মাধ্যমে জানানো হয়, বুধবারই ঈদ৷ চাঁদ দেখা যাওয়ার খবরে ঈদের আনন্দ উৎসব ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। সৌরভ ছড়াতে থাকে পিঠা পায়েস পুলির। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে শহরের মার্কেট ও বিপনীবিতানগুলোতে বেচা-কেনা৷
 
এদিকে বুধবার (৫ জুন) সকাল সাড়ে ৮টায় প্রশাসনের কড়া নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জে দ্বিতীয় বারের মতো শহরের ইসদাইরের একেএম শামসুজ্জোহা স্টেডিয়াম ও ঈদগাহের সমন্বয়ে বৃহত্তর ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়৷ এ ঈদ জামাতে ইমামতি করেন চাষাড়া নূর মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আব্দুস সালাম৷ নামাজে অংশ নেন হাজারও মানুষ।
 
নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের তত্ত্বাবধানে নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। আগামীতে সারা বাংলাদেশের মধ্যে সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজন করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন সাংসদ শামীম ওসমান৷ ঈদ জামাতে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এবং জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়াসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে নানা শ্রেণি পেশার মানুষ এই ঈদ জামাতে অংশগ্রহণ করেন।
 
বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) রূপগঞ্জে ঈদের নামাজ আদায় করেন। পরে রূপগঞ্জ প্রশাসনের কর্তাব্যাক্তি, সংগঠনের নেতাকর্মী, শুভানুধ্যায়ীদের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। 
 
সোনারগাঁও আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা নিজ সংসদীয় এলাকায় পবিত্র ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজ পরবর্তী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, শুভানুধ্যায়ীদের সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন
 
গত ঈদ-উল-আযহার মতো এবার ঈদ-উল-ফিতরেও জেলার সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজন করেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান। তবে এবারের ঈদের জামাতের আয়োজনে আধুনিকতার ছোয়া ছিল। গতবারের মতো এবারো এই ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় শহরের ইসদাইরে অবস্থিত একেএম শামসুজ্জোহা স্টেডিয়ামে। সংযুক্ত ছিল নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ্ ময়দান ও মধ্যবর্তী ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কটিও।
 
গতবার বাঁশ ও কাপড় দিয়ে ঈদ জামাতের শামিয়ানা তৈরি করা হয়। বাঁশ ও কাপড়ের প্যান্ডেলের বদলে এবার ঈদগাহের কাঠামো তৈরি হয়েছে স্টিলের কাঠামোর উপর। উপরের শামিয়ানাও এসেছে নতুনত্ব। এছাড়া ছিল আধুনিক আলোকসজ্জ্বা ও সাউন্ড সিস্টেমের ব্যবস্থা৷ এদিকে বৃহত্তর এ ঈদ জামাতকে ঘিরে ছিল জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা৷ মুসুল্লিদের নিরাপত্তায় পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব, বিজিবি, আর্মড পুলিশসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কঠোর নজরদারি ছিল।
 
নামাজ ও খুতবা শেষে নারায়ণগঞ্জসহ দেশ, জাতি ও মুসলিম বিশ্বের শান্তি-অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পরে মুসল্লিরা পরস্পরের সাথে কোলাকুলি করে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
 
এছাড়া শহরের খানপুর হাসপাতালের সামনে সকাল ৮টায় ও সকাল ৯টায় পৃথক দুটি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। ঈদের নতুন পোশাক পড়ে শহরের অলি-গলি ঘুরে বেড়াচ্ছে নারী-পুরুষ শিশু। আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবদের বাড়িতে গিয়ে কুশল বিনিময় করছেন নগরবাসী। বড়দের কাছ থেকে সালামি নিচ্ছেন ছোটরা।
 
এদিকে ফতুল্লার কাশীপুর কেন্দ্রীয় ঈদগাহে সকাল পৌনে ৭টা ও ৮টায় দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়৷
 
এদিকে গ্রামের বাড়িতে থাকা প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে শহর ছেড়েছেন অসংখ্য মানুষ। সরকারি এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এবার নারায়ণগঞ্জ ছেড়েছে সাড়ে ১১ লাখ ঘরমুখী মানুষ৷ অনেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রেন, লঞ্চ ও বাসযোগে বাড়ি গিয়েছেন। ফাঁকা হয়ে গেছে নারায়ণগঞ্জ শহর।
 
পুবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় পত্রিকা ও অনলাইনগুলো বিশেষ সংখ্যা বা ম্যাগাজিন প্রকাশ করেছে। এছাড়া কারাগার, হাসপাতাল, ভবঘুরে আশ্রয় কেন্দ্রে বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঈদ উপলক্ষে বর্নিল সাজে সাজানো হয়েছে শহরের বিভিন্ন এলাকাগুলোকে। চাষাঢ়া, মিশনপাড়া, আমলাপাড়া, জামতলা, খানপুর, ডনচেম্বার, নিতাইগঞ্জ, পাইকপাড়া, দেওভোগসহ নগরীর সবকটি এলাকাকে সাজানো হয়েছে বাহারি আলোকসজ্জায়ায়।
সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ