সোমবার ২১ অক্টোবর, ২০১৯

আড়াইহাজারে পুলিশের পোশাকে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, স্পিডবোটে পলায়ন

মঙ্গলবার, ৮ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৩৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: আড়াইহাজারে একটি বাজার ঘেরাও করে ৩টি জুয়েলারী ও ১টি মোবাইলের দোকানে ডাকাতি করেছে পুলিশের পোশাক পরিহিত ডাকাতদল। ডাকাতেরা ৮০ ভরি স্বর্ণ, ৪৫ কেজি রূপা, ১১টি মোবাইল সেট ও নগদ ১০ লক্ষ টাকা সহ ৫২ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করেছে।

সোমবার (৭ অক্টোবর) রাত ১২টার দিকে কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের রাধানগর বাজারে আলম সুপার মার্কেটে ঘটে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় দোকান ২ কর্মচারী, ২ পাহারাদারসহ মোট ৪ জন আহত হয়েছে।

পুলিশ ও বাজারের ব্যবসায়ীদের সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ২৫/২৬ জনের ডাকাতদল রাধানগর বাজারটি ঘিরে ফেলে। তারা বাজারের পাহারাদার আব্দুল ও হাসেমকে আটক করে তাদেরকে পিটিয়ে আহত করে ও মার্কেটের ভাড়াটিয়া ও নির্মান শ্রমিক কবির হোসেন, মোহর আকন্দী ও মাসুদকে মার্কেটের দোতলায় আটক করে বাজারটি ঘেরাও করে ফেলে ডাকাতদল। পরে তারা আলম সুপার মার্কেটের উজ্জ্বল মিয়ার উজ্জ্বল স্বর্ণালয়ের সার্টার ভেঙ্গে ভেতরে থাকা কর্মচারী প্রসেনজিৎ ও আনোয়ারকে পিটিয়ে আহত করে ও অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৩টি সিন্দুক ভেঙ্গে ৭০ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার, ৪১ কেজি ওজনের রূপার অলংকার ও ৭ লক্ষ টাকা, একই সময় শাহিনের স্বর্ণের দোকানের তালাকেটে ৭ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার ও ৩ কেজি রূপার অলংকার, মোস্তফার স্বর্ণের দোকানের তালাভেঙ্গে ৩ ভরি স্বর্ণ ও কেজি রূপা ও মুক্তার হোসেনের মোবাইলের দোকানের তালাভেঙ্গে ১১টি মোবাইল সেট লুট করে নিয়ে যায় ডাকাতদল। ডাকাতরা ২াট স্পিড বোর্ডে এসে ডাকাতি শেষে আবার স্পিড বোর্ডেই পালিয়ে যায়।

মার্কেটের ভাড়াটিয়া ও নির্মাণ শ্রমিক কবির হোসেন জানান, ডাকাতরা পুলিশের পোশাক পরে শর্টগান ও পিস্তল নিয়ে তাদেরকে আটক করে মার্কেটের দোতালায় একটি কক্ষে নিয়ে আটক করে রাখে। পরে রাত ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত ৩ ঘন্টা পর্যন্ত বাজারে তান্ডব চালায় ডাকাতদল।

উজ্জ্বল স্বর্ণালয়ের মালিক উজ্জ্বল হোসেন জানান, তার জুয়েলারীর ৩টি সিন্দুক ভেঙ্গে ৭৫ ভরি স্বর্ণ, ৪১কেজি রূপা ও ৭ লক্ষ টাকা লুট করে ডাকাতদল। তিনি অভিযোগ করেন, কালাপাহাড়িয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটি মার্কেটের ১শ’ গজের মধ্যে হলেও ঘটনার সময় কোন পুলিশ যায়নি।

এদিকে ঘটনার পর পর রাধানগর বাজারে আতংক বিরাজ করছে।

ঘটনার পর মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে সহকারী পুলিশ সুপার (‘গ’ অঞ্চল) আফসার উদ্দিন ও আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। দুস্কৃতিকারীরা সিকিউরিটি গার্ডের পোশাক পড়ে আসছে বলে শোনা গেছে। সেটাকেই অনেকে পুলিশের পোশাক ভেবেছে। উজ্জ্বল স্বর্ণালয়ের কর্মচারী প্রসেনজিৎকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করা হচ্ছে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ