বুধবার ১৩ নভেম্বর, ২০১৯

আড়াইহাজারে ইউএনও বন্ধ করলেন বাল্য বিয়ে

শুক্রবার, ১ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:১০

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: আড়াইহাজারে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হোসেন। এ সময় বর ও কনের বাবা ও মাকে আটক করা হয়। পরে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবেন না এমন মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পান কনের বাবাসহ অন্যরা।

শুক্রবার (১ নভেম্বর) দুপুর ২টার গোপালদী পৌরসভার কলাগাছিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, স্থানীয় আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর সাথে নরসিংদীর মাধবদী এলাকার কাঁঠালিয়া ইউপির চৌগরিয়া এলাকার মোতালিব প্রধানের ছেলে আল-মামুনের বিবাহের আয়োজন করা হয়। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হোসেন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) উজ্জ্বল হোসেন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আঞ্জুমান আরা উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আঞ্জুমান আরা জানান, পূর্ব নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী সকাল থেকেই চলছিল বাল্য বিয়ের সব ধরনের প্রস্তুতি। খবর পেয়ে ইউএনও সোহাগ হোসেন ও এসিল্যান্ড উজ্জ¦ল হোসেন বিয়ে বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হন এবং পুলিশের সহযোগিতায় তা বন্ধ করেন। এ সময় বর ও কনের বাবা-মাকে আটক করা হয়। পরে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও স্থানীয় বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে কনের বাবা মুচলেকা দিয়ে তিনিসহ অন্যরা ছাড়া পান।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ