মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯

আড়াইহাজারে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

রবিবার, ৪ আগস্ট ২০১৯, ১৬:০৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে সুলতানা (২০) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত সুলতানা ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

রোববার (৪ আগস্ট) সকালে খবর পেয়ে স্থানীয় ব্রাহ্মন্দী ইউপির বালিয়াপাড়া এলাকা থেকে লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে পুলিশ।

এর আগে শনিবার বিকেলে শ্বশুরবাড়িতে নিজের শোবার ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় সুলতানাকে উদ্ধার করে বলে দাবি শ্বশুরবাড়ির লোকজনের। পরে তাকে স্থানীয় গাউছিয়া আল রাফি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্ত্যবরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে নিহতের পরিবারের দাবি তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পরে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে স্বামীসহ অন্যরা পলাতক রয়েছে।

নিহত সুলতানা ব্রাহ্মন্দী ইউপির বালিয়াপাড়া এলাকার তুলার ব্যবসায়ী আসাদের মেয়ে। সুলতানার স্বামী সোহেল (৩০) একই এলাকার ফল বিক্রেতা মো. শামসুর ছেলে। সুলতানা ও সোহেল সম্পর্কে মামাতো-ফুফাতো ভাইবোন ছির।

নিহতের পরিবারে সূত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে সুলতানার সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় একই এলাকার সামছুল মিয়ার ছেলে সোহেলের। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী ও তার পরিবারের অন্যদের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না। সে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল।

এদিকে রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে সোহেলের ছোট ভাই রাসেলকে জিজ্ঞেস করলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, ঘটনার সময় ভাবী ছাড়া কেউ বাসায় ছিল না। পরে বাসায় ফিরে শুনি ভাবী ফাঁস দিয়ে মারা গেছেন।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় আপাতত অপমৃত্যুর একটি মামলা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পাবার পর মৃত্যুর কারণ নির্ণয় করা সম্ভব হবে।

সব খবর
নগরের বাইরে বিভাগের সর্বশেষ