শনিবার ২০ জুলাই, ২০১৯

আপনার মোবাইল সিম কি ফোরজি?

শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:০৩

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ ডটকম: ১৯শে ফ্রেব্রুয়ারি থেকে দেশে চালু হচ্ছে দ্রুতগতির ইন্টারনেট ফোরজি। ইতোমধ্যে ফোরজি নিয়ে মাতামাতি শুরু হয়েছে। চতুর্থ প্রজন্মের নেটওয়ার্ক তথা ফোরজি চালু হওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।আপনি কি জানেন ফোরজিতে কি কি সুবিধা পাবেন কিংবা কীভাবে জানবেন, আপনার সিম ফোরজি কিনা? চলুন প্রথমে জেনে নেই ফোরজি’তে যেসব সেবা পাবেন 

ফোরজি’তে যেসব সেবা পাবেন

অনেকেই জানেন না থ্রিজি থেকে ফোরজি আসলে মানুষ কি ধরনের উন্নত সেবা পাবে। থ্রিজিতে এক জিবি ফাইল ডাউনলোড করতে লাগতো ২০ মিনিট সেখানে ফোরজিতে লাগবে মাত্র ৫ মিনিট। অনলাইনে থ্রিজির মাধ্যমে মুভি দেখলে বাফারিং হতো, এই সমস্যা এখন আর থাকবে না।
বিশ্বের অনেকে দেশেই ঘরে বসেই অনলাইন সরাসরি ক্লাস করা সম্ভব, আমাদের দেশেও এই সুবিধা আছে। তবে ঢাকার বাহিরে থেকে ইন্টারনেট গতি কম থাকাতে ক্লাস করা সম্ভব ছিল না। ফোরজির কল্যানে এখন এই সমস্যা দূর হবে।

বাংলাদেশে থ্রিজি প্রযুক্তির আরেকটি বড় বাধা- এখানে এই সেবা প্রযুক্তি স্পেকট্রামের যে ব্যান্ডে দেওয়া হয়েছে (২১০০ ব্যান্ড) তার বড় দুর্বলতা হলো এটি পাশাপাশি উঁচু ভবন থাকলে বেজ স্টেশন বা টাওয়ারের মাঝে এক ধরনের প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়ে যায়। তাই নেটওয়ার্ক ভালো পাওয়া যায় না। ফলে শহরের বড় বড় ভবনের অলি-গলিতে নেটওয়ার্কও ভালো মেলে না।
ফোরজিতে এখানেই সবচেয়ে বড় অগ্রগতি হবে। কারণ, অপারেটররা যে কোনো ব্যান্ডেই ফোরজি সেবা দিতে পারবেন। ফলে ভালো নেটওয়ার্কের বড় অগ্রগতি হবে এর মাধ্যমে। কথা বলা এবং ইন্টারনেট ব্যবহার– দুই ক্ষেত্রেই তা হবে।

দেশে এখন থ্রিজি প্রযুক্তির ইন্টারনেটের গড় গতি ৩ দশমিক ৭৫ এমবিপিএস। অন্তত টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের হিসাব তাই বলছে। থ্রিজি আসার আগে এটি কতো ছিলো? নিশ্চিতভাবে সেটি ছিলো কেবিপিএস গতির মধ্যে। আর ফোরজি হলে গতি অন্তত এমবিপিএসের হিসাবে দশকের ঘরে চলে যাবে। তারপরেও গ্রাহক সন্তুষ্ট নাও হতে পারেন।
দেশে থ্রিজি চালু হওয়ার শুরুর দিকে মোবাইল ইন্টারনেটের সংযোগে প্রতি মাসে ডেটার ব্যবহার ছিলো ৯০ এমবি। আর এখন সেটি সাড়ে ছয়শ এমবি! পাঁচ বছরে ডেটা ব্যবহারের হার শুধু মোবাইল ফোনেই বেড়েছে সাতগুণ। ফোরজি যুগের সাত বছরে এটি আরো সাত থেকে দশগুণ পর্যন্ত বাড়বে বলে ধারণা করা যেতে পারে।

আরো একটি বিষয় হলো ফোরজি চালু হলে যারা ফোরজি ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন তারা মূলত বড় ভলিউমের ইন্টারনেটই ব্যবহার করবেন। এতোদিন তারা থ্রিজি ব্যবহার করতেন। তারা থ্রিজি থেকে ফোরজিতে চলে আসলে থ্রিজি’র স্পেকট্রামের ওপর চাপ কমবে এবং যেখানে ফোরজি নেটওয়ার্ক থাকবে না সেখানে থ্রিজি পরিস্থিতিও আগের চেয়ে ভালো হবে।

আপনার সিমটি ফোরজি কিনা

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো প্রায় একবছর আগে থেকে ফোরজি সিম বিক্রি শুরু করেছে। এছাড়া, এসময়ের মধ্যে যারা সিম রিপ্লেস (নষ্ট, চুরি বা হারিয়ে গেলে নতুন সিম কিনে প্রতিস্থাপন) করেছেন, তারাও অপারেটরের কাছ থেকে পেয়েছেন ফোরজি সিম। কিন্তু তারও আগে যারা সিম কিনেছেন, তারা কীভাবে জানবেন, তাদের সিম ফোরজি কিনা ? যাচাইয়ের জন্য মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো মেসেজ অপশন চালু করেছে। সংশ্লিষ্ট অপারেটরে এসএমএস পাঠিয়ে জেনে নেওয়া যাচ্ছে, সিমটি ফোরজি কিনা। কোনও কোনও এসএমএস-এ  ফোরজি সিম সংক্রান্ত তথ্যের পাশাপাশি ফোন সেটটিও ফোরজি সমর্থন করে কিনা, তা জানা যাবে।এরই মধ্যে অপারেটরগুলো মোবাইলে ফোরজি সেবা পেতে আগ্রহীদের গ্রাহকসেবা কেন্দ্রে গিয়ে সিম বদলে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে।

গ্রামীণফোন

মোবাইলের কিপ্যাড অথবা ডায়াল অপশনে গিয়ে *১২১*৩২৩২# লিখে ডায়াল বাটন চাপলে ফিরতি মেসেজে জানা যাবে, আপনার সিমটি ফোরজি কিনা। কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, যারা সিম বদল করেত চান— তারা ১১০ টাকার বিনিময়ে ফোরজি সিম নিতে পারবেন। তবে ‘জিপি স্টার’ গ্রাহকরা বিনা খরচে সিম বদলে নিতে পারবেন।

রবি 

গ্রাহক তার মোবাইলের কিপ্যাড অথবা ডায়াল অপশনে গিয়ে *১২৩*৪৪# লিখে ডায়াল বাটন চাপলে ফিরতি এসএমএস-এ জানিয়ে দেওয়া হয়, সিম ও সেটটি ফোরজি কিনা। এয়ারটেল গ্রাহকরাও একইভাবে জানতে পারবেন সিম ও সেটের তথ্য। তবে সিম বদলে ফোরজি সিম নিতে গ্রাহকের খরচ হবে ১০০ টাকা। রবি কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে অপারেটরটি বাজারে রবি সিম ছেড়েছে। এসময়ের মধ্যে যারা সিম কিনেছেন বা বদল করেছেন, তাদের সিম ফোরজি সমর্থিত।

বাংলালিংক 

বাংলালিংকের সিম বদলে নিতে গ্রাহককে কোনও খরচ দিতে হবে না। বিনামূল্যে অপারেটরটি গ্রাহকদের সিম বদলে ফোরজি সিম দিচ্ছে। কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, গ্রাহকরা মেসেজ অপশনে গিয়ে ফোরজি লিখে ৫০০০ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফিরতি মেসেজে জানিয়ে দেওয়া হবে, সিমটি ফোরজি কিনা।

টেলিটক 

অপারেটরটির গ্রাহকরা যত সিম ব্যবহার করছে এবং বাজারে অবিক্রিত রয়েছে ৯০ ভাগই ফোরজি সিম। অবশ্য ১০ ভাগ গ্রাহকের সিম বিনা খরচে, নাকি টাকা দিয়ে বদলে নিতে হবে, সে বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানা গেছে।

অপারেটর সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ফোন সেট ফোরজি সমর্থিত কিনা তা জানতে গ্রাহকরা সংশ্লিষ্ট অপারেটরের সেবাকেন্দ্রে গিয়ে জেনে নিতে পারবেন সেটের তথ্য।

 

সব খবর