সোমবার ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮

আজ সাংবাদিক রবিনের জন্মদিন

শনিবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:০৭

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: ‘বাবার ইচ্ছে ছিলো জীবনে ভালো একজন মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার, কতটুকু হতে পেরেছি জানি না, তবে আমি সুখি, জীবনটাকে উপভোগ করছি। আমার চারপাশের মানুষগুলো আমাকে অনেক ভালোবাসে, বাকী জীবনটা এভাবেই কাটিয়ে দিতে চাই।’

এভাবেই নিজের জন্মদিনে বলছিলেন, দৈনিক মানবজমিনের স্টাফ রিপোর্টার এবং ‘প্রেস নারায়ণগঞ্জ’ নিউজ পোর্টাল এর সম্পাদক বিল্লাল হোসেন রবিন। ২৪ নভেম্বর তার জন্মদিন।

পিতা হাজী মো. মজিবুর রহমান ও মাতা মনিফা বেগম এর অতি আদরের সন্তান তিনি। ৪ ভাই এক বোনের মাঝে তৃতীয়। স্কুল জীবনের শুরু আদমজী হাই স্কুল। মাধ্যমিক পাশ করেন সরকারী তোলারাম কলেজ থেকে, এরপর একই কলেজ থেকে বিএসএস, পরে ঢাকার একটি বেসরকারী ইউনিভার্সিটি থেকে এল.এল.বিতে অনার্স করেন।

সাংবাদিকতার শুরু ১৯৯৪ সাল থেকে। প্রথম পত্রিকার নাম ছিলো দৈনিক শক্তি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ‘ভেরের ডাক’ ‘আল মোজাদ্দেদ’ ‘আজকের কাগজ’ ‘বাংলাবাজার পত্রিকা’ গুলোতে তিনি ধারাবাহিকতায় কাজ করে এসেছেন। ২০০২ সালে মানবজমিন এ যোগ দেন তিনি। ২০০৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মানবজমিন এর স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পাশাপাশি অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রেস নারায়ণগঞ্জ এর সম্পাদক হিসেবেও রয়েছেন। সাংবাদিকতার ফাঁকে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন রবিন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘ব্যানার বৃত্তি’ প্রকল্পের চেয়ারম্যান এবং বিডি ক্লিন নারায়ণগঞ্জ এর উপদেষ্ঠা। এছাড়াও মানবাধিকার সংগঠন ‘অধিকার’ এর নারায়ণগঞ্জের সমন্বয়ক তিনি।

ব্যক্তি জীবন নিয়ে বিল্লাল হোসেন রবিন বলেন, অবসর সময় গান শুনতে এবং আড্ডা দিতে ভালোবাসি। মাঝে মাঝে বন্ধুদের সাথে রাস্তায় দাড়িয়ে আড্ডা দিতে দিতে কখনো রাত ২ টাও বেজে যায়, সময়ের হিসাব খুজে পাই না তখন। জীবনে ইচ্ছে আছে নিজের নির্বাাচিত কলাম শিরোনামে একটি বই বের করার। রবিন বলেন, জীবন সংঙ্গীনির সাথে কলেজ লাইফ থেকেই পরিচয়, দুই পরিবারের সম্মতিতেই আমরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। আমাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। প্রিয় রং কালো, নীল। মাছে ভাতে বাঙ্গালী তিনি। এর মাঝে বেশী পছন্দ করেন সবজী খেতে। জীবনে প্রিয় মানুষদের বেশী প্রাধান্য দিয়ে থাকেন, তাইতো ছোট ভাই তানভীর যখন রাত ১১.২০ মিনিটে প্রথম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে ম্যাসেজ পাঠায়, তখন পাঁচ বছর ধরে জন্মদিন হাইড করে রাখার অপশন তিনি ২৩ নভেম্বর রাত ১১.৪৫ মিনিটে ওপেন করে দেন।

লুকিয়ে রাখার কারণ হিসেবে তিনি বলেন, জীবন থেকে একটি করে বছর চলে যায়, আমার ভালো লাগে না। অনেক কস্ট লাগে। কিন্তু প্রিয় মানুষেরা আমাকে অভিনন্দন জানাতে চায় শুভেচ্ছা জানাতে চায় তাই এই বছর থেকে গ্রহন করছি। রাত থেকে ভালো লাগছে অনেক, এত এত মানুষ শুভেচ্ছা জানাচ্ছে, সবার শুভেচ্ছার উত্তর দেয়ার চেষ্টা করছি। আমার পরিবার আমাকে রাতে সারপ্রাইজ দিয়েছে, দেরি করে বাসায় ফিরছি। মানে ১২টার পর, তারপরও রাত ১২.২০ মিনিটে কেক কেটে উদযাপন করা হয় আমার জন্মদিন। প্রেস নারায়ণগঞ্জ পরিবারের পক্ষ থেকে বিল্লাল হোসেন রবিন এর জন্মদিন উপলক্ষে রইলো অনেক অনেক ভালোবাসা, শুভেচ্ছা ও শুভ কামনা। এছাড়াও সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন রবিনের জন্মদিনে লাইভ নারায়ণগঞ্জ পরিবারের পক্ষ খেকে  শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

সব খবর
পজিটিভ নারায়ণগঞ্জ বিভাগের সর্বশেষ