সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আইনজীবী স্ত্রীর করা মামলায় জামিন পেলেন পুলিশ কর্মকর্তা

বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৩৫

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

প্রেস নারায়ণগঞ্জ: এড. জাসমিন আহমেদের ৫০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে মারধরের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় জামিন পেয়েছেন স্বামী আবু নকিব।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) সকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আফতাবুজ্জামানের আদালতে পুলিশ কর্মকর্তা আবু নকিব জামিনের জন্য আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

মামলায় জাসমিন তার স্বামী আবু নকীবকে প্রধান আসামির পাশাপাশি স্বামীর পরিবারের আরো চারজনকে আসামি করেছেন। অন্য আসামীরা হলেন, নকিবের ভাই মো. নাছের নিপুণ (৩৫), বোন জুবরিয়া বেগম (৬০), অপর ভাই মো. আবু নোমান সজন (৫০) ও ভাইয়ের স্ত্রী শিরিন আক্তার হিরা (৪৫)।

স্বামী আবু নকিবের পাশাপাশি জামিন পেয়েছেন দেবর মো. নাছের নিপুণ।

এই বছরের ৪ মার্চ এড. জাসমিন আহমেদের দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা যায়, সন্তান দানে অক্ষম জেনেও জাসমিন আহমেদের সাথে ২০০৭ সালের ১৪ মে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন মো. নকিব। বিবাহের পর স্ত্রীর নিকট ৫০ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে অত্যাচার করতে থাকে স্বামী। নিজ বিবাহ-জীবন সুখে শান্তিতে কাটানোর জন্যে স্বামীকে ১২ লক্ষ টাকার ১টি প্রাইভেটকার, ১টি মোটর সাইকেল এবং ঢাকায় জমি কেনার জন্য নগদ ৫০ লক্ষ টাকা দেন জাসমিন।

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়, জাসমিনের স্বামী নকিব সম্প্রতি লম্বা দাঁড়ি রেখে ও স্বাভাবিক চালচলন পরিবর্তন করে ইসলামী লেবাস ধারণ করে উগ্র জঙ্গীবাদী সংগঠনে জড়িয়ে পড়েন। ইসলামের অনেক বিষয়ে অপব্যাখ্যা দিয়ে জাসমিনকে তার সাথে উগ্র জঙ্গিবাদি দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করে। এত জাসমিন রাজি না হওয়ায় স্বামী আবু নকিব বেশ কয়েকবার জাসমিনকে হত্যার চেষ্টা করেছেন। এর মধ্যে একবার চলন্ত মোটর সাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে, ঘুমের মধ্যে গলা টিপে ধরে এবং মুখে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টাও চালায়। আবু নকিব তার কোমরের বেল্ট ও পায়ের বুট জুতা দিয়ে জাসমিনকে পিটিয়ে নির্য়াতন করে বলেও অভিযোগ করা হয়।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ