সোমবার ১৯ আগস্ট, ২০১৯

অবৈধ রিকশা নিয়ন্ত্রণে উৎসাহ পাচ্ছে না নাসিক

রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ২২:১৪

প্রেস নারায়ণগঞ্জ.কম

ইশতিয়াক আহমেদ (প্রেস নারায়ণগঞ্জ): একদিকে ঈদের বাজারে হকারদের দখলে ফুটপাত। অন্যদিকে রাস্তার দুই-তৃতীয়াংশ শহরজুড়ে চলাচলকারী বৈধ অবৈধ রিকশার দখলে। ফলে নিজেদের হজম শক্তির পরীক্ষায় ঈদের অন্তত ১৫ দিন আগে থেকেই চিরায়ত নাজেহাল জীবনযাপন করছেন নারায়ণগঞ্জবাসী। তাই ফুটপাত ছেড়ে এখন প্রধান সড়কেও আপাতত হাঁটার মতো জায়গার সন্ধান করছেন না কেউ। একদিকে অবৈধ রিকশার দাপটে জিম্মি জনজীবন। অন্যদিকে ঈদের দোহাই দিয়ে কয়েকগুন বেশি ভাড়া হাকাচ্ছেন এইসকল রিকশাচালকরা। নগরীকে সাধারণ মানুষের চলাচলের উপযোগী করার জন্যে যা নিয়ন্ত্রণন করা আবশ্যক বলেই মনে করছেন জেলার সচেতন মহল। কিন্তু কে করবে এই নিয়ন্ত্রণ?

আপাত দৃষ্টিতে শহরের এসকল ব্যবস্থাপনার দায় সিটি কর্পোরেশনের উপর থাকলেও সাথে প্রশাসনের সম্পূর্ণ চেষ্টা থাকাটাও বাধ্যতামূলক। তবে প্রতি বছর এসকল সমস্যা নিয়ন্ত্রণে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ছোট বড় নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হলেও এ বছর এ বাড়তি সমস্যা নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না নাসিক। অনলাইন নিউজ পোর্টাল প্রেস নারায়ণগঞ্জকে কথাটা স্পষ্ট করেই বলেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ.এফ.এম. এহতেশামূল হক।

অবৈধ রিকশাও চালকদের অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ে নাসিকের পরিকল্পনা জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রেস নারায়ণগঞ্জকে জানান, ‘প্রতি বছরই আমরা এ সময়ের এই বাড়তি চাপটি মোকাবেলায় পদক্ষেপ নিয়েছি। রিকশা ভাড়াও নির্ধারণ করা ছিল পূর্ববর্তী বছরগুলোতে। কিন্তু এইগুলা কেউ মানে না। তাই উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছি। যে জিনিসটা কেউ মানবেই না সেই জিনিস করে লাভ কি?’

তিনি আরো বলেন, ‘এর সাথে তো দুই ধরণের লোক জড়িত আছে। এক হল, রিকশাচালক; দ্বিতীয়ত, যাত্রী। যেকোন একজনকে তো আমাদের সহযোগিতা করতে হবে। অন্তত যারা উঠবে তারা তো আমাদের সহযোগিতা করবে যে না এই টাকার বেশি হলে আমরা উঠবো না। একটা পক্ষের যদি সহযোগিতা না পাই তাহলে আমরা কিভাবে কি করবো? এর আগে ম্যাডামের (মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী) সাথে আমি কথা বলেছি। তিনি বলেছেন যে, এর আগে আমরা ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছিলাম কিন্তু এই ভাড়া কার্যকর করার জন্য কোন ভোক্তা অধিকার বা কোন সংগঠন থেকে আমরা সহযোগিতা পাই নি। এই জন্য আমরা উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছি।’

এ সময় শহরজুড়ে দাপটের সাথে চলাচলকারী অবৈধ রিকশা নিয়ন্ত্রণে সিটি কর্পোরেশনের নীরব ভূমিকার কারণটি এড়িয়ে যান তিনি

রমজানের শুরু থেকে ক্রমান্বয়ে অবৈধ রিকশা বাড়তে থাকে তাই শহরে দিন দিন যানজট বেড়েই চলছে। ঈদের দিন যতোই নিকটে আসছে ততই মহামারী রূপ ধারণ করছে এই যানজট। যানজট যেন এখন নিয়ন্ত্রনের বাইরে। আর নগরজুড়ে যানজটের অন্যতম কারণ এসকল অবৈধ রিকশা।

নগরীর প্রধান সড়কগুলোতে নামলেই দেখা যায়, সবগুলো রাস্তা এখন রিকশার দখলে। ঈদকে কেন্দ্র করে রিকশার দৌরাত্ম্য বেড়েছে কয়েকগুন। নগরীর প্রতিটি বিপনী বিতান ও মার্কেটগুলোর সামনে রাস্তার উপর সারি সারি রিকশা। এদের দখলে সড়কের দুই-তৃতীয়াংশ। অবৈধ এই রিকশার দাপটে শহরের সাধারণ মানুষ নানা দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে।

সব খবর
নগর বিভাগের সর্বশেষ